বৃহস্পতিবার, ১৭ Jun ২০২১, ১২:১১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
হত্যাকান্ডের ৯ দিন পর খুনিকে গ্রেপ্তার করেছে র্্যাব মাগুরা শ্রীপুরের জনপ্রিয় শিক্ষক আমিরুজ্জামান সেলিমের ইন্তেকাল বাকলিয়ার সন্ত্রাসী এয়াকুবসহ চিহ্নিত অস্ত্রধারীদের গ্রেফতার দাবি চট্টগ্রামে বায়েজিদ লিংক রোডে ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে পাহাড়ের বসতিদের উচ্ছেদ অভিযান শুরু পরীমণিকে ধর্ষণচেষ্টায় নাসির উদ্দিন গ্রেফতার রাউজানের গণি পাড়ার মেয়ে কিংবদন্তি শাবানার গ্রামের বাড়িতে বছরে পর বছর ঝুলছে তালা র‌্যাব ক্যাম্পের অভিযান : দুই মাদক কারবারি আটক সদ্য নবনির্বাচিত দিনাজপুর চেম্বারের রেজা হুমায়ুন ফারুক চৌধুরী (শামীম) পরিষদের বিজয়ীদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানালো পরিবেশক সমিতি দিনাজপুর কোম্পানীগঞ্জে সিএনজি ধর্মঘটের ঘোষণা পৌর মেয়র কাদের মির্জা’র চট্টগ্রামের বাকলিয়ার এয়াকুব আলী বাহিনীর চিহ্নিত অস্ত্রধারীদের অস্ত্র উদ্ধারের দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন

রাজশাহীতে রেকর্ড পরিমাণ বেগুনচাষ, দাম কম হওয়ায় লোকসানের মুখে কৃষক

ইফতেখার আলমঃ

বাজারে ব্যাপক চাহিদা দেখা দেয়ায় রাজশাহীর পুঠিয়ায় এবার রেকর্ড পরিমাণ জমিতে বেগুনের চাষ করা হয়েছে। বর্তমানে বাজারে বেগুনের চাহিদা অনেক কম। প্রকার ভেদে প্রতিমণ বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৩০০ থেকে ৪৫০ টাকা দরে। দাম কম হওয়ায় চরম লোকসানের মুখে পড়েছেন চাষিরা।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিস জানায়, চলতি বছর উপজেলায় প্রায় ৫৫০ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন প্রজাতির বেগুন চাষ হয়েছে। যা গত বছরের তুলনায় ১০০ হেক্টর বেশি। এরমধ্যে তাল, চরকি, চায়না ও স্থানীয় জাত লক্ষিকুল রয়েছে। তবে চায়না ও তাল বেগুন বেশি রোপণ করা হয়েছে। এবার বিগত বছরের তুলনায় প্রাকৃতিক দুর্যোগ কম হওয়ায় আশানুরূপ ফলন আশা করা হচ্ছে।
ভালুকগাছি এলাকার বেগুন চাষি তৈমুর রহমান বলেন, গত কয়েক বছর থেকে আমি এক বিঘা জমিতে বেগুন রোপণ করে আসছি। গত বছরও এই জমি থেকে খরচ বাদে প্রায় দুই লাখ টাকার বেগুন বেচা হয়েছে। এবার বেশি লাভের আশায় দুই বিঘা জমিতে রোপণ করছি। প্রতি বিঘায় খরচ হয় প্রায় ১৭-১৮ হাজার টাকা। এখন পুরো খেতের সকল গাছে পর্যাপ্ত বেগুন ধরেছে। তবে বাজারে বেগুনের দামের পাশাপাশি চাহিদা অনেক কম। এরকম বাজার কিছু দিন চললে অনেক চাষিরা মোটা অঙ্কের লোকসানে পড়বেন।

বিড়ালদহ আড়তে বেগুন বিক্রি করতে আসা তারাপুর এলাকার চাষি আজিজুর রহমান বলেন, বর্তমানে তাল বেগুনের কিছুটা চাহিদা রয়েছে। আজ প্রতিমণ বেচা হচ্ছে ৪০০ টাকা। আর অন্যগুলো আরও কম। এতো অল্প টাকায় বেগুন বেচে আমাদের প্রতিদিনের খরচই উঠে না। সামনে বর্ষা আসছে। অনেকেই প্রথম পর্যায়ে লাভের আশায় নিচু জমিতে চারা লাগিয়েছেন। ফুল-ফলও ভালো এসেছে। তবে আগাম বৃষ্টিপাতে জমিতে পানি জমে গেলে গাছগুলো মারা যাবে। এতে অনেক চাষিদের লোকসান গুণতে হবে।

উপজেলার বৃহৎ শিবপুরহাট আড়তের বেগুন ব্যবসায়ী জমির হোসেন বলেন, বিগত বছরের তুলনায় এবার প্রতিদিন অনেক বেশি বেগুন আসছে। তার মধ্যে লকডাউনের কারণে দেশের বিভিন্ন এলাকায় যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে ছোট ব্যবসায়ীরা আগের মত আসতে পারছেন না। বড় ব্যবসায়ীরা ট্রাকে করে সবজি কিনছেন। আর ছোট ব্যবসায়ীরা যাত্রীবাহী বাসে করে কাচামাল পরিবহন করতেন। বেশি খরচের কারণে ছোট ব্যবসায়ীরা অনেক কম আসছেন। যার কারণে এবার বেগুনের বাজারে দাম কিছুটা কম যাচ্ছে। তবে সামনে পরিবহন চলাচল স্বাভাবিক হলে চাষিরা কিছুটা লাভের মুখ দেখতে পাবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
Design & Developed BY TechPeon.Com