বৃহস্পতিবার, ১৭ Jun ২০২১, ১০:৫৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
হত্যাকান্ডের ৯ দিন পর খুনিকে গ্রেপ্তার করেছে র্্যাব মাগুরা শ্রীপুরের জনপ্রিয় শিক্ষক আমিরুজ্জামান সেলিমের ইন্তেকাল বাকলিয়ার সন্ত্রাসী এয়াকুবসহ চিহ্নিত অস্ত্রধারীদের গ্রেফতার দাবি চট্টগ্রামে বায়েজিদ লিংক রোডে ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে পাহাড়ের বসতিদের উচ্ছেদ অভিযান শুরু পরীমণিকে ধর্ষণচেষ্টায় নাসির উদ্দিন গ্রেফতার রাউজানের গণি পাড়ার মেয়ে কিংবদন্তি শাবানার গ্রামের বাড়িতে বছরে পর বছর ঝুলছে তালা র‌্যাব ক্যাম্পের অভিযান : দুই মাদক কারবারি আটক সদ্য নবনির্বাচিত দিনাজপুর চেম্বারের রেজা হুমায়ুন ফারুক চৌধুরী (শামীম) পরিষদের বিজয়ীদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানালো পরিবেশক সমিতি দিনাজপুর কোম্পানীগঞ্জে সিএনজি ধর্মঘটের ঘোষণা পৌর মেয়র কাদের মির্জা’র চট্টগ্রামের বাকলিয়ার এয়াকুব আলী বাহিনীর চিহ্নিত অস্ত্রধারীদের অস্ত্র উদ্ধারের দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন

দিনাজপুরে জন্ম নেওয়া অদ্ভুত শিশুটি এখন রংপুর মেডিকেলে

রংপুর ব্যুরোঃ

দিনাজপুরের বীরগঞ্জে চার হাত-পা নিয়ে জন্ম নেওয়া নবজাতকটি এখন রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদিকে নবজতকের দিন মজুর বাবা সন্তানের চিকিৎসার সাহায্যের জন্য সমাজের বিত্তবানদের সহযোগিতা চেয়েছেন। তবে এখনই নিশ্চিত করে কিছু বলতে না পারলেও অপারেশনের মাধ্যমে নবজাতকের বাড়তি অঙ্গ অপসারণ করা সম্ভব বলে হাসপাতালের চিকিৎসকরা আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। পরীক্ষা নিরীক্ষার রিপোর্ট এলেই নবজতকটি সর্ম্পকে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের শিশু সার্জারি ওয়ার্ডের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।

হাসপাতাল ও নবজাতকের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার ভোরে বীরগঞ্জ পৌরশহরের খানসামা রোডস্থ বীরগঞ্জ ক্লিনিকে নরমাল ডেলিভারিতে চার হাত-পা বিশিষ্ট এক পুত্র সন্তানের জন্ম হয়েছে। কাহারোল উপজেলার মুকন্দপুর গ্রামের দিনমুজুর গোলাম রব্বানীর স্ত্রী রুনা লায়লা স্বাভাবিকভাবেই এই সন্তান প্রসব করেন। অদ্ভুত এই শিশুটিকে প্রাথমিকভাবে শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. মনীন্দ্র নাথ রায়ের কাছে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেলে তিনি নবজাতককে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন। শুক্রবার রাতে অদ্ভুত এই নবজাতককে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের শিশু সার্জরি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। শনিবার সকালে বেশকিছু পরীক্ষা দেওয়া হয়। পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে এলে চিকিৎসকরা শিশুটির অপারেশনের বিষয়ে সীদ্ধান্ত নেবেন।

শিশু সার্জারি ওয়ার্ডের প্রধান ডা. বাবলু কুমার সাহা জানিয়েছেন, নবজাতকের এই অঙ্গগুলোকে প্যারাসাইট (পরগাছা জাতীয়) অঙ্গ বলে। অপারেশনের মাধ্যমে এগুলো অপসারণ করা সম্ভব। তবে এই ক্ষেত্রে পরগাছা অঙ্গগুলো দেহের কতটুকু গভীরে রয়েছে তা পরীক্ষার রিপোর্ট না এলে বুঝা যাবে না। তবে তিনি আশাবাদি অপারেশনের মাধ্যমে ওই অঙ্গগুলো কেটে ফেলা সম্ভব। খুব জটিল না হলে রংপুরেই অপারেশন করা সম্ভব বলে তিনি জানান।
এদিকে নবজাতকের দিনমজুর বাবা গোলাম রব্বানী মিনতি করে জানিয়েছেন, দিনমজুরী করে সংসার চালান তিনি। কোন জমি-জায়গা নাই। অপারেশন ও ওষুধপত্রের টাকা জোগার করা তার পক্ষে কষ্টকর। তিনি সন্তানের চিকিৎসার জন্য সমাজের বিত্তবান ও সহৃদয় ব্যক্তিদের এগিয়ে আসার অনুরোধ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
Design & Developed BY TechPeon.Com