1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
স্ত্রী বিএনপির সমর্থনে ভাইস চেয়ারম্যান, স্বামী চান নৌকার মনোনয়ন - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৫:১৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
মোটরসাইকেল শোডাউনের মাধ্যমে আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হারুনুর রশিদ রঙ্গু’র পূজামন্ডপ পরিদর্শন মাগুরায় নির্বাচনী সহিংসতায় দু পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ!! নিহত -৪ আহত -২০ লাকসামে রাজনীতির প্রতিহিংসায় গাছের সাথে শত্রুতা! রাউজানে সুষ্ঠ ও শান্তিপুর্ণ ভাবে সনাতনী ধর্মীয় অনুসারীদের শারদীয় দুর্গোৎসব সম্পন্ন নবীনগরে উপজেলা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উদযাপন কুবির দত্ত হলে জুনিয়র ছাত্রলীগ কর্মীরা মারধর করে সিনয়রকে সাঈদ হাসান,কুবি রাউজানে সব ধর্মের মানুষ অসম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী-পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনে এমপি ফজলে করিম নবীগঞ্জে শেখ রাসেল দিবস পালন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত আমিলাইষের পূজামণ্ডপে আলহাজ্ব মোজাম্মেল হক চৌধুরীর আর্থিক অনুদান ও কাপড় বিতরণ রিদওয়ান খালিদ চোধুরীর জন্মদিন আজ

স্ত্রী বিএনপির সমর্থনে ভাইস চেয়ারম্যান, স্বামী চান নৌকার মনোনয়ন

নিজস্ব প্রতিবেদক |
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫২ বার

২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিএনপির একক প্রার্থী হয়ে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন তৎকালীন উপজেলা বিএনপির সদস্য ছেনুয়ারা বেগম।

সাত বছর পর তাঁর স্বামী অবসরপ্রাপ্ত হিসাবরক্ষণ বিভাগের দ্বিতীয় শ্রেণীর সরকারি কর্মকর্তা জাফর আলম চৌধুরী, ১১ই নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য উখিয়া উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার জন্য চেয়েছেন জাফর আলম চৌধুরী।

বিএনপি ঘরণার এমন একজন যিনি কখনোই স্থানীয় পর্যায়ে আওয়ামী লীগের কোন পদ বা কোন ধরনের সাংগঠনিক কার্যক্রমে জড়িত ছিলেন না তার মনোনয়ন চাওয়ার খবরে রাজাপালং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন বিরুপ প্রতিক্রিয়া।

রাজাপালং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম নুরু বলেন, “জাফর আলম চৌধুরী কখনোই দলের কোন পদে ছিলেন না এমনকি আমার জানামতে তার প্রাথমিক সদস্য পদও নেই। দলীয় কোন কর্মসূচিতে তিনি কখনোই ছিলেন না।”

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের ১ অক্টোবর আবেদন করে বিএনপির সদস্য পদ লাভ করেন জাফরের স্ত্রী ও রামু উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি প্রয়াত হাসান আলী মাস্টারের কন্যা ছেনুয়ারা বেগম। তাঁর স্বাক্ষরিত দলীয় পদ চাওয়ার একটি আবেদনপত্র প্রতিবেদকের হাতে এসেছে। এছাড়াও সেসময় রাজাপালং ইউনিয়ন বিএনপি উত্তরের সভাপতি গফুর কোম্পানি বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এরপর বিএনপির দলীয় সমর্থনে ২০১৪ সালের উপজেলা নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেও পরে যোগদান করেন আওয়ামীলীগে। উখিয়া উপজেলা বিএনপির সাধারণ নেতাকর্মীদের কাছে একারণে তিনি প্রশ্নবিদ্ধ।

এ প্রসঙ্গে উখিয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সরোয়ার জাহান চৌধুরী বলেন, “বিএনপির সাথে বেঈমানি করে সরকারি চতুর কর্মকর্তা স্বামীর যোগসাজশে ছেনুয়ারা আমাকে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যানের ও দায়িত্ব পালন করেন, যোগ দেন আওয়ামীলীগে। সে ও তার স্বামী কোন দলেই নিরাপদ নয়।”

অভিযোগ আছে, ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নেওয়ার পর ছেনুয়ারা বেগম স্বামীর প্ররোচনায় উপজেলা পরিষদের নামে ২০১৪-১৫ অর্থ বছরের বরাদ্ধকৃত ৩৭৩ মেট্রিক টন গম ও চাউল এবং নগদ ২২ লক্ষ ৮৭ হাজার ৮শত সরকারী কোষাগার থেকে উত্তোলন করে আত্নসাৎ করেন।

এছাড়াও দায়িত্বে থাকাকালীন পরিষদে ছেনুয়ারা বেগম ও তার স্বামী জাফর আলম চৌধুরীর অবৈধ হস্তক্ষেপের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয় স্থানীয় সরকার বিভাগে। অভিযোগের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নিতে স্থানীয় সরকার বিভাগ, চট্টগ্রামের তৎকালীন পরিচালক শংকর রঞ্জন সাহা স্বাক্ষরিত একটি পত্র কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক বরাবর প্রেরণ করে স্থানীয় সরকার বিভাগ। পরে তদন্ত হলেও ক্ষমতার দাপটে অভিযোগ থেকে রেহাই পান তারা।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে জাফর আলম চৌধুরী তার স্ত্রী ২০০৮ সাল থেকে যুব মহিলা লীগের রাজনীতিতে জড়িত বলে দাবী করেন। সেসময়ের নির্বাচনী প্রচারণার ছবি ও বিএনপি নেতাদের বক্তব্য এবং দলীয় পদ চাওয়ার আবেদনের কথা জানালে তিনি কৌশলে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন।

নানা কারণে বিতর্কিত হঠাৎ আওয়ামী লীগ হয়ে ওঠা জাফর আলম চৌধুরী মনোনয়ন পেলে সরকারের উন্নয়ন প্রশ্নবিদ্ধ হবে বলে আশংকা আওয়ামীলীগের সাধারণ নেতাকর্মী সহ উখিয়ার স্থানীয়দের।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম