1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
ইরান- ইসরায়েল যুদ্ধ হলে ইসরায়েল কেন হারবে - দৈনিক শ্যামল বাংলা
রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৪:৪৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
আজ রোববার লালমনিরহাট ও কালীগঞ্জ উপজেলার ১৭টি ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন নবীগঞ্জ উপজেলায় ১৩ টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন।। আজ নির্বাচন ৪৮ টি ঝুকিপূর্ন আশুলিয়ায় শাহাবুদ্দিন মাদবরের নির্বাচনী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম জেলা প‌রিষ‌দ টাওয়ারের মূল ভবন নির্মাণ কা‌জের উদ্বোধন রাউজানের সীমান্তবর্তী রাঙ্গামাটি জেলার কাউখালী উপজেলার ডাক্তার ছোলা এলাকায় পাহাড় কাটা হচ্ছে হাটহাজারীর ১৩ ইউনিয়ন পরিষদে ভোট কাল ধর্মপাশায় ৫ম ধাপে ১০টি ইউপিতে হবে নির্বাচন শ্রীনগরে জমি লিখে নিতে সাবেক ইউপি সদস্যের হুমকি” দেশের কোন আইন এই এলাকায় কিছু করতে পারবে না নাছির উদ্দীন এর জনমতে ঈর্ষান্বিত হয়ে তার পরিবারের উপর প্রতিপক্ষের হামলা মোবাইল চুরির অপবাদে বিবস্ত্র করে যুবককে নির্যাতন

ইরান- ইসরায়েল যুদ্ধ হলে ইসরায়েল কেন হারবে

এম.এইচ সোহেল
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৮ নভেম্বর, ২০২১
  • ৩৭ বার

ইরানে ইসলামিক বিপ্লব পর থেকে চলছে ইসরায়েলর সাথে প্রক্সি যুদ্ধ। এই প্রক্সি যুদ্ধে কে কার থেকে এগিয়ে তা গবেষণার বিষয়। ইসরায়েল কখনো ইরানের বিজ্ঞানী হত্যা, কখনো সাইবার হামলা। ইরান কখনো ইসরায়েলের জাহাজে হামলা, কখনো হামাস, হিজবুল্লাহ দিয়ে ইসরায়েল কে চাপে রাখা। এভাবে দীর্ঘদিন ধরে চলছে অঘোষিত ছায়া যুদ্ধ। সামরিক শক্তিতে ইরান বিশ্বের ১৪তম, ইসরায়েল ২০তম, ইসরায়েল থেকে সেনা সংখ্যায় এগিয়ে ইরান, যুদ্ধ বাধঁলে স্থলে শক্তিতে ইরান এগিয়ে থাকবে। যদি ইসারায়েলর সাথে তার মিত্ররা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করে, তাতে ইরানের হাতে রয়েছে মিশাইলের যথেষ্ট সক্ষমতা অথাৎ স্থল যুদ্ধে ইরানের সাথে পেড়ে উঠবে না ইসরাইল। মিশাইল সক্ষমতায় ইরান এখন বিশ্বের অন্যতম, ড্রোন প্রযুক্তিতে ইরান ব্যপক সফলতা অর্জন করেছে। বিমান ও পরমাণু শক্তিতে ইসারায়েল ইরানের থেকে এগিয়ে থাকলেও ভৌগোলিক কারনে ইসরায়েল সুবিধাজনক অস্থানে নেই। ইরানের সাথে যেহেতু ইসরাইয়েল কোন সীমান্ত নেই, ইসরায়েলের জন্য ইরানের ভূখণ্ডে বিমান হামলা করা কঠিন হয়ে যাবে। অপর দিকে ইরান সিরিয়া ও নেবাননের আকাশ পথ ব্যবহার করে ইসরায়েলে বিমান হামলা করতে পারবে। নৌ-শক্তিতে ইসরায়েল থেকে ইরান অনেক এগিয়ে। এখানে আবার গুরুত্বপূর্ণ দিক হচ্ছে ‘হরমুজ প্রণালী’ যেটি বিশ্ব তেল বানিজ্যের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সামুদ্রিক পথ। যেটি ইরান বন্ধ করে দিলে, তেল রপ্তানি অনেকাংশে কমে যাবে, যার ফলে বিশ্ববাজারে তেলের দাম বেড়ে যাবে। ইরান-ইসরায়েল যুদ্ধ বাধঁলে এটি শুধু ইরান-ইসরায়েলের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে না। সমস্ত মধ্যেপ্রাচ্যয় ছড়িয়ে পড়বে। ইরান নিয়ন্ত্রণ করেন ছয়টি মিলিশিয়া গ্রুপ, হিজবুল্লাহ,হামাস, হুদি, ইসলামি জিহাদ, পপুলার মভিলাইজেশন ফোর্স,ও সিরিয়ার আসাদ বাহিনী। এরা সবাই ঝাপিয়ে পড়বে ইসরাইলের দিকে, চতুর্মুখি হামলার সম্মুখিন হবে ইসরায়েল। যুদ্ধের জন্য জ্বালানি খুবই গুরুত্বপূর্ণ, ইসরায়েলের নিজস্ব কোন তেল উৎপাদন নেই। ইরান হচ্ছে বিশ্বের অন্যতম তেল রপ্তানি এবং উৎপাদনকারি দেশ তাছাড়াও ইরানে রয়েছে বিশাল গ্যাসের ভান্ডার। ইসরায়েল একটি ছোট দেশ, ইরানের ৮০ ভাগের একভাগ হচ্ছে ইসারায়েল। এতো ছোট ভূখণ্ড নিয়ে দীর্ঘ মেয়াদি ইরানের সঙ্গে যুদ্ধে ঠিকে থাকা কঠিন হয়ে যাবে ইসরায়েলের জন্য। জনসংখ্যার শক্তিতে অন্তত ১০ গুণ বেশি ইরান। ইরানের সাথে যুদ্ধের মুখোমুখি হলে ইসরায়েল কে একাধিক ফ্রন্টে যুদ্ধ চালিয়ে যেতে হবে। সৌদি আরব কিংবা মধ্যেপ্রাচ্যর অন্য কোন দেশ সরাসরি ইরানের বিরুদ্ধে ইসরায়েলের মিত্র হয়ে যুদ্ধে অংশগ্রহণ কিংবা সমর্থন দিবে না। মধ্যেপ্রাচ্য ইরানের প্রভাব দিনদিন বেড়েই চলছে। সৌদির প্রভাব মধ্যেপ্রাচ্য আগের মত নেই। ইরানের সঙ্গে ইসরায়েল যুদ্ধে যাওয়া মানি শুধু পরাজয় নয় বরং ভয়াবহ ক্ষতির মুখোমুখি হবে ইসরায়েল।

লেখক: সম্পাদক, শিক্ষা সাহিত্যমুলক পত্রিকা অভিযাত্রী, চট্টগ্রাম।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম