1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
সীমান্তে আত্মার দিগম্বর - দৈনিক শ্যামল বাংলা
রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৬:২৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
আজ রোববার লালমনিরহাট ও কালীগঞ্জ উপজেলার ১৭টি ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন নবীগঞ্জ উপজেলায় ১৩ টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন।। আজ নির্বাচন ৪৮ টি ঝুকিপূর্ন আশুলিয়ায় শাহাবুদ্দিন মাদবরের নির্বাচনী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম জেলা প‌রিষ‌দ টাওয়ারের মূল ভবন নির্মাণ কা‌জের উদ্বোধন রাউজানের সীমান্তবর্তী রাঙ্গামাটি জেলার কাউখালী উপজেলার ডাক্তার ছোলা এলাকায় পাহাড় কাটা হচ্ছে হাটহাজারীর ১৩ ইউনিয়ন পরিষদে ভোট কাল ধর্মপাশায় ৫ম ধাপে ১০টি ইউপিতে হবে নির্বাচন শ্রীনগরে জমি লিখে নিতে সাবেক ইউপি সদস্যের হুমকি” দেশের কোন আইন এই এলাকায় কিছু করতে পারবে না নাছির উদ্দীন এর জনমতে ঈর্ষান্বিত হয়ে তার পরিবারের উপর প্রতিপক্ষের হামলা মোবাইল চুরির অপবাদে বিবস্ত্র করে যুবককে নির্যাতন

সীমান্তে আত্মার দিগম্বর

এম এ জব্বার ; সাংবাদিক ও গবেষক।
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৫ নভেম্বর, ২০২১
  • ১৮ বার

দিগম্বর শব্দটার সাথে আমরা সবাই পরিচিত। কোন ব্যক্তির লজ্জা নিবারণের সর্বশেষ পরিধেয়টুকু যখন কেড়ে নেওয়া হয় তখনই এই শব্দটির প্রয়োগ দেখা যায়। শব্দটি ব্যবহার জাতিগোষ্ঠীর ক্ষেত্রও কম ব্যবহার হয় না। কুৎসিত শব্দের মাধ্যমে লেখা শুরু করার জন্য অগ্রিম ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। নরপিচাশ ,স্বার্থলোভী,রক্তপিপাসু,জোঁক প্রকৃতির শাসক যে জাতিগোষ্ঠীর ঘাড়ে চেপে বসে থাকে তাদের নাগরিকদের প্রতিমুহূর্তে দিগম্বর হতে হয়। একইভাবে অনধিকার চর্চা, ব্যক্তি ও জাতীয় স্বার্থ রক্ষায় রাষ্ট্রীয় ব্যর্থতা,নতজানু পররাষ্ট্রনীতি ক্ষতিগ্রস্তের রাগ ক্ষোভ,অভিমান রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানকে বহুবার দিগম্বর করে ছাড়ে।

সিলেটের কানাইঘাট সীমান্তে অমীমাংসিত অবস্থায় চার দিন পড়ে আছে বাংলা মায়ের দুই সন্তানের লাশ, কারো সন্তান, বাবা, কিংবা ভাই ; সর্বোপরি লাল সবুজের পতাকা।
নাগরিকের মৌলিক অধিকার আদায়ে আমরা
চরমভাবে ব্যর্থ। স্বার্থলোভী মনোভাব,রাজনীতি বিমুখ বশ্যতা স্বীকার প্রতিনিয়তঃ আমাদের দ্বারা মানবতাবিরোধী অপরাধ করাচ্ছে। সিংহের জাতি থেকে পুরুষত্বহীন কাপুরুষের জাতিতে পরিণত হয়েছি।,আমরা ফেলানীকে দুইদিন ঝুলিয়ে রেখেছিলাম।এখন আর রয়েল বেঙ্গল টাইগার নই ; শুধুই মেচি বিড়াল।

তোমাদের কে বলেছিল জীবন উৎসর্গ করে স্বাধীনতা এনে দিতে ? বোকার মতো ভিটেমাটি ছেড়ে তর্জন গর্জনে জীবন দিয়েছ ঝুলে থাকো সীমান্তের তারকাঁটায়। আমরা নগর জীবনের শত ব্যস্ততায় রক্ষিতার নাভি প্রদর্শনে ব্যস্ত ; তোমাদের মনে রাখতে পারছিনা। আমরা অট্টালিকায় থেকে অভ্যস্ত ; ক্ষণিকের জন্যও কুঁড়েঘরে দম বন্ধ হয়ে আসে।তোমরা যেই পতাকা বুকে আগলে মজা পেতে ; আমরা সেই পতাকা পদতলে পিষ্ট করে মজা পাই। আমরা নিষ্ঠুর ,পাষণ্ড,বিশ্ববেহায়া দাজ্জাল। আমরা তোমাদের গোর কিংবা শ্মশান কোথাও স্থান দিব না।

তোমাদের কি করে সাহস হলো প্রভুর সীমানায় পা রাখতে ? সুদ্দুর হয়ে ব্রাহ্মণের দিকে তাকালে চোখ তুলে ফেলা হয় সেটা কি তোমাদের জানা ছিল না ? আমরা জিব্বা দিয়ে যেই প্রভুর পা চেটে দেই ; তোমরা তার আঙিনায় পাচন হাতে কেন গেলে ? মনে রেখো আমাদের সান -সৌকত ,বৃত্ত -ভৈরব ,কোন কিছুই জলাঞ্জলি দিয়ে তোমার পক্ষে দাঁড়াতে পারবো না। জানি এতদিনে তোমাদের লাশ কুয়াশায় ভিজে রোদে শুকিয়ে কাঠ হয়ে যাচ্ছে, তোমার মা,স্ত্রী সন্তান দূর থেকে রাত জেগে তোমাকে পাহারা দিচ্ছে। তোমার সবচেয়ে বড় অপরাধ ; তুমি কেন গরীবের ঘরে জন্মালে ?? তুমি যদি ধনীর দুলাল কিংবা প্রভু রাষ্ট্রের হাতি হতে ক্যামেরার ঝলকানিতে তোমার শরীরে সূর্যালোক পড়তে পারত না। হাজার হাজার মানবাধিকার কর্মী ছুটে যেত তোমার পাশে। বিশ্বনেতারা টুইটারে ঝড় তুলতেন তোমাকে নিয়ে। তুমি যে বাংলাদেশ সে কথা আমরা ভুলে গেছি বলেই সর্বত্র প্রতিবাদ বিমুখ।

তোমার আত্মাকে পাঠিয়ে দাও জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ; দেখো কেউ তোমাকে নিয়ে কথা বলছে কিনা ? তোমার আত্মাকে পাঠিয়ে দাও শেরেবাংলানগরে ;দেখ তোমার গেট পাস জুঁটে কি না! তোমার কথা শুনতে কাকডাকা ভোর থেকে দুপুর অবদি অপেক্ষায় ছিলাম জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ; ভেবেছিলাম তোমাকে নিয়ে কেউ কথা বলবে ,কিন্তু না কাউকে পেলাম না তোমাকে নিয়ে কথা বলার।
জাতীয় মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করলাম ইসলামী দলগুলোর মুখে তোমাদের কথা শোনার জন্য, কিন্তু না কেহই নেই তোমার পক্ষে কথা বলার। এমনকি একজন মুসলিম হিসাবে মোনাজাতেও স্থান হয়নি তোমার। যেই ব্যর্থ রাষ্ট্র মরনের পরে তোমার লাশ কাঁধে তুলে নিল না তার দুর্নীতির ৬৮ হাজার টাকার ঋণ ঠিকই তোমার কাঁধে তুলে দিয়েছে।

তোমরা সুপুরুষ ছেলে বলেই পাকবাহিনীকে হটিয়ে লাল সবুজের পতাকা এনে দিয়েছিলে। সুবর্ণজয়ন্তীতেও নতজানু পররাষ্ট্রনীতিতে ব্রাহ্মণের পদতলে পিষ্ট বাংলার স্বাধীনতা। তোমাদের রক্তে স্বাধীন স্বদেশে আমরাই তোমাদের লাশ শিয়াল কুকুরকে খাওয়াচ্ছি। আমরা নিষ্ঠুর,অমানুষ, মাংসাশী হয়না,আমরা লোভী,আমরা হিজরা,আমাদের পুরুষত্ব বহু আগেই বিক্রি করে দিয়েছি হিন্দুস্থানের কাছে।তোমাদের বিশ্বাস না হলে আত্মাকে পাঠিয় দিগম্বর করলে আমার কথার সত্যতা মিলবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম