1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : naga5000 : naga5000 naga5000
লালমনিরহাটে গৃহবধুকে অমানসিক নির্যাতন করে বাড়ী থেকে বেড় করে দেয়ায় ৩ শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা - দৈনিক শ্যামল বাংলা
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৯:৩৯ পূর্বাহ্ন

লালমনিরহাটে গৃহবধুকে অমানসিক নির্যাতন করে বাড়ী থেকে বেড় করে দেয়ায় ৩ শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

লাভলু শেখ স্টাফ রিপোর্টার লালমনিরহাট থেকে।
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২২ মে, ২০২২
  • ১২৩ বার

লালমনিরহাটের কালিগঞ্জে গৃহবধুকে অমানসিক নির্যাতন করে বাড়ী থেকে বেড় করে দেয়ায় ৩ শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। প্রধান আসামী পলাতক। এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি।

মামলার বর্ণায় জানা গেছে, ওই উপজেলার দক্ষিণ গোপালরায় গ্রামের মৃত ইছাহাক আলীর মেয়ে স্কুল শিক্ষক মোছাঃ পলিনা বেগম(৩৩) এর সাথে ওই উপজেলার মৃত নমিনুল ইসলাম এর ছেলে মোঃ ফেরদৌস ইসলাম রিয়াদ (৪০) এর সাথে গত ২০/০৩/২০১৫ ইং সালে ৪ লক্ষ ১ টাকা দেনমোহর ধায করে বিবাহ হয়।দাম্পত্যজীবনে তাদের সংসারে ১টি শিশু সন্তান রয়েছে। কিন্তু বিবাহের সময় ১০ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করলে নগদ ৫লক্ষ টাকা প্রদান করা হয়। পরবর্তীতে ৫ লক্ষ টাকা না দিয়ে মোছাঃ পলিনা বেগম তার সংসারের সুখের কথা চিন্তা করে প্রায় ২০ লক্ষ টাকা দিয়ে উন্নত বাড়ী নির্মাণ এবং সাংসারিক বিভিন্ন আসবাবপত্র ক্রয় করেন এর পর তার চাকুরীর উপর সোনালী ব্যাংক লিমিটেড কালিগঞ্জ শাখা থেকে কনজুমার লোন উত্তোলন করে স্বামী মোঃ ফেরদৌস ইসলাম রিয়াদকে দেয়ার পরও ননদ মোছাঃ সেহেলী তানজিন মোনালিসা (৪৪), শ্বাশুড়ী মোছাঃ মাহমুদা বেগম (৬২), মামা শ্বশুর মোঃ রুহুল আমিন (৪৫) এর যোগসাজসে আবারো ৫ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে। সে টাকা না দিলে স্বামী ফেরদৌস ইসলাম রিয়াদ শুরু করে তার উপর অমানসিক নির্যাতন।

তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ স্কুল শিক্ষক মোছাঃ পলিনা বেগম কে এক পর্যায়ে গত ২১/০৩/২০২২ইং তারিখ স্বামী ও অন্য ৩ আসামী তাকে বেধরক- মারপিট করলে গুরুতর আহত অবস্থায় পলিনা বেগমকে স্হানীয় উপজেলা চেয়ারম্যান তাৎক্ষণিক উদ্ধার করে তার বাবার বাড়িতে পৌছে দিলে তার বড় ভাই সদর হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা করান।অতঃপর দীর্ঘদিন পর্যন্ত তাকে নিয়ে স্হানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের পিছনে আপোষের জন্য ধর্ণা দিয়ে ব্যর্থ হন।উপায় না পেয়ে তার শিশু সন্তানকে নিয়ে কালীগঞ্জ থানায় স্বামী মোঃ ফেরদৌস ইসলাম রিয়াদসহ ৪জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ৯ তাং ১৪/৫/২২ইং তারিখ। ৪ জন আসামীর মধ্যে স্বামী রিয়াদ কালিগঞ্জ করিম উদ্দিন পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের লাইব্রেরিয়ান, মোছাঃ সেহেলী তানজীন মোনালিসা চাপারহাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক, মামা শ্বশুর রুহুল আমিন ভূল্লাহাট আশরাফিয়া দাখিল মাদরাসার সহকারী শিক্ষক হিসেবে চাকুরী করছেন। গৃহবধু মোছাঃ পলিনা বেগম করিম উদ্দিন পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী শিক্ষক বলে জানা গেছে। উচ্চ শিক্ষিত পরিবারে এমন অমানবিক ঘটনায় সচেতন মহলে আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। অপরদিকে লম্পট স্বামী রিয়াদ স্কুল ফাঁকি দিয়ে পুলিশী গ্রেফতার এড়াতে পলাতক রয়েছে। এ বিষয়ে কালিগঞ্জ থানার ওসি গোলাম রসুল জানান, আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। মোছাঃ পলিনা বেগম সাংবাদিকদের জানান, আমার স্বামী রিয়াদ এতটাই লম্পট যে, বলার ভাষা নেই। আমি শিশু সন্তানকে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি। তাই সে লম্পট স্বামীর শাস্তির দাবী জানিয়েছেন। এদিকে রিয়াদ বাদে ৩ আসামী জামিনে রয়েছে বলে জানা গেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম