1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
পদ্মা সেতু চালুর ফলে জাহাজমারা সমুদ্র সৈকতে পর্যটকের ভিড় - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২, ০৮:২৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
সৈয়দপুরে ১ সন্তানের জনকের লাশ উদ্ধার স্বদেশের আবৃত্তি সংগঠনের মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব আবৃত্তি অনুষ্ঠান চন্দনাইশে শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমীতে নজরুল ইসলাম চৌধুরী এমপি চন্দনাইশে ৬ হাজার ৮’শ পিচ ইয়াবাসহ আটক-১ কুষ্টিয়া জেলা যুবমৈত্রীর কমিটি: সভাপতি মনিরুজ্জামান মজনু, সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা মীরসরাইয়ের ওচমানপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে শোকসভা বরেণ্য সাংবাদিক সরকার আদম আলী এর স্মরণে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত। সৈয়দপুরে স্বেচ্ছাসেবক দলের বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা সাংবাদিক আক্তার হোসেনের মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত! হাটহাজারী উপজেলা ও পৌরসভা যুবদলের কমিটি ঘোষণায় আনন্দ মিছিল

পদ্মা সেতু চালুর ফলে জাহাজমারা সমুদ্র সৈকতে পর্যটকের ভিড়

মাহমুদুল হাসান,পটুয়াখালী
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৪ জুলাই, ২০২২
  • ২৪ বার

পদ্মা সেতু চালুর ফলে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার মৌডুবী ইউনিয়নের জাহাজমারা সমুদ্র সৈকতে বাড়তে শুরু করেছে পর্যটক। একই স্থানে দাড়িয়ে সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত দেখার জন্য কম সময়ে ঢাকা থেকে পদ্মা সেতু হয়ে ঈদুল আজাহার ছুটি কাটাতে জাহাজমারা সমুদ্র সৈকতে ভিড় জমাচ্ছেন হাজারো পর্যটক এবং মুখরিত হয়ে উঠেছে পুরো সৈকত। ঈদের দিন থেকে শুরু করে প্রতিদিন জাহাজমারা সমুদ্র সৈকতে পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড় এবং বাঁধভাঙ্গা উচ্ছ্বাসে মেতেছে ছোট বড় সবাই।

তবে পর্যটকদের দাবি, জাহাজমারার সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নাতি করা হলে এ সৈকত হবে পর্যটকদের জন্য একটি বিনোদন কেন্দ্র। পানপট্রি থেকে কোড়ালিয়া ফেরি চালু হলে এবং উপজেলা থেকে জাহাজমারা বিচ পর্যন্ত রাস্তা পাকা করা হলে খুব দ্রুত সময়ে ও সল্প খরচে পর্যটকরা আসতে পারবে জাহাজমারা সমুদ্র সৈকতে। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে রাস্তা পাকা করা হলে বর্ষা মৌসুমেও এই সৈকতে আসতে কোন সমস্যা হবে না বলে জানিয়েছেন পর্যটকরা।
৬ কিলোমিটার এই সমুদ্র সৈকত ঘুরে দেখা যায়, হাজারো পর্যটকদের ভিড় পুরো সৈকত জুড়ে কেউ সৈকতের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করেছেন। কেউ আবার সাগরের লোনা পানিতে বন্দুদের নিয়ে গোসলে মেতে উঠেছে। কেউ সৈকতের বিভিন্ন যায়গা ঘুরছে অনেকেই তাদের পছন্দ মতো ছবি তুলছেন। আবার কেউ ছাতার নিচে বসে সমুদ্রের ঢেউ উপভোগ করছেন।
ঢাকা থেকে ঘুরতে আশা এক পর্যটক বলেন, পদ্মা সেতু চালুর পরে মনে করলাম দেশের বিভিন্ন যায়গায় ঘুরলাম যেমন কুয়াকাটা, কক্সবাজার,সেন্টমার্টিন তবে জাহাজমারার কথা অনেক শুনেছি ঢাকা থেকে আসতে সময় বেশি লাগতো তাই আশা হয়নি। এবার আমাদের স্বপ্নের পদ্মা সেতু চালুর পরে জানতে পারলাম আগের চেয়ে অর্ধেক সময় লাগে রাঙ্গাবালীর জাহাজমারা সমুদ্র সৈকতে। তাই আমরা এবার প্রথম বার পরিবারের সকলকে নিয়ে জাহাজমারা সমুদ্র সৈকতে ঘুরতে আসলাম এবং বন্দুদের নিয়ে অনেক আনন্দ করলাম ভালো লাগছে এখানকার পরিবেশ অনেক সুন্দর পাশাপাশি চর-তুফানিয়া ঘুরলাম সেখানে ঝাউবাগান দেখতে ভালোলাগে গ্রাম্মপরিবিশ দেখার মতই। এখানকার মতো মনোরম পরিবেশ কোথাও দেখিনি।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, পদ্মা সেতু চালুর ফলে তাদের ভাগ্যের চাকা ঘুরে যাচ্ছে অন্য বছরের চেয়ে এ বছর ঈদে জাহাজমারা সৈকতে আনেক বেশি দর্শনার্থী এসেছে। আমাদের এই সৈকতে স্থায়ী ৩টি দোকান আছে এখানে আমরা সবসময় থাকি। আমরা এখানে দেশিও ফল ফলাদি (তাল ডাব পাকা পেঁপে দেশি পেয়ারা ইত্যাদি ) বিক্রি করি। এ বছর বিক্রি ও মাশাল্লাহ ভালো।
স্থানীয় সচেতন নাগরিক মোঃ নাঈমুর রহমান বলেন, পদ্মা সেতু চালুর ফলে আমাদের দক্ষিন অঞ্চলের মানুষের ভাগ্যের দুয়ার খুলে যাচ্ছে। অন্য যেকোন সময়ের থেকে এ বছর ঈদে দর্শনার্থীর সংখ্যা অনেক বেশী। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলা ভুমি, দৃষ্টি নন্দন এই সমুদ্র সৈকত থেকে সূর্য উদয় ও সূর্যাস্ত দেখা যায়। বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন যদি জাহাজমারা সমুদ্র সৈকত কে, পর্যটন এলাকা ঘোষনা করে। তহলে এই জাহাজমারা আমাদের জাতীয় অর্থনীতিতে গুরুত্ব পূর্ন ভূমিকা রাখবে এবং এ অবহেলিত জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থানের ও সুযোগ হবে।

সারাদিন সৈকতে ঘুরেও সূর্যাস্ত দেখার জন্য অফেক্ষা করেন অনেক পর্যটকরা। তাদের নিরাপত্তা দেয়ার জন্য রাঙ্গাবালী থানার প্রশাসন মনিটরিং করেন এবং মৌডুবী ইউনিয়ন পরিষদ থেকে কয়েক জন গ্রাম পুলিশ সেখানে থাকেন।
মৌডুবী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদ হাসান (রাসলে) বলেন, জাহাজমারা সমুদ্র সৈকতে প্রতিদিনই পর্যটকদের আগামন ঘটে এই সমুদ্র সৈকতে সূর্যস্ত ও সূর্যোদয় দেখা যায়। এখানে রয়েছে ফরেস্ট ম্যানগ্রোভ বিভিন্ন প্রকার অতিথি পাখীর সমারোহ ঘটে পর্যটকরা পাখিদের কিচিমিচি শব্দে নিরিবিলি জায়গায় আন্দদ করতে পারে। এর পাশে রয়েছে চর-হেয়ার,কলা গাছিয়ার চর,রয়েছে চর-তুফানিয়া এখানে পর্যটকরা ঘুরে আত্তো তৃপ্তি পায়। পর্যটকদের নিরাপত্তায় রাঙ্গাবালী থানা পুলিশ মনিটরিং করেন। এর পাশাপাশি ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে আমরা সবসময় গ্রাম পুলিশ থাকে জাহাজমারা সমুদ্র সৈকতে।
তিনি আরো বলেন, উপজেলা থেকে জাহাজমারা সমুদ্র সৈকত পর্যন্ত কাচা মাটির রাস্তা আছে, আমি প্রতেক অফিসে যোগাযোগ করবো যাতে করে রাস্তা গুলো অতি দ্রুত পাকা করন করা হয়। তাহলে পর্যটকসহ সকল মানুষ এই রাস্তা দিয়ে সহজে যাতায়াত করতে পারবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম