1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
মাগুরায় বেওয়ারিশ ক্ষ্যাপা কুকুরের কামড়ে ১৩ জন আহত - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১২:২২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নবীনগরে কোটাপদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল রাউজানে তিনদিন ব্যাপী বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন রাউজানে ৬০ প্রজাতির ১ লাখ ৮০ হাজার ফলজ ও ঔষধি গাছের চারা রোপন কর্মসূচি উদ্বোধন মাগুরায় নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান শরিয়াতউল্লাহ হোসেন রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান  *জরুরী রক্ত প্রয়োজন*রক্তের গ্রুপ: AB+ (এবি পজেটিভ) ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চৌদ্দগ্রামে তিন ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর আ’লীগ-ছাত্রলীগের হামলা সারাদেশে ছাত্রসমাজের উপর মর্মান্তিক হামলার প্রতিবাদ ও কোটা সংস্কারের এক দফা দাবিতে দোহাজারীতে বিক্ষোভ মিছিল  এমএসআর’র ১ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা লুটপাট সমস্যায় জর্জরিত চট্টগ্রামের চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-অধিকাংশ চিকিৎসক অনুপস্থিত থাকেন নবীনগরে কুতুবিয়া দরবার শরীফে শাহাদাতে কারবালা মাহফিল অনুষ্ঠিত

মাগুরায় বেওয়ারিশ ক্ষ্যাপা কুকুরের কামড়ে ১৩ জন আহত

মোঃ সাইফুল্লাহ ;
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৪ আগস্ট, ২০২২
  • ১২৮ বার

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার সোনাতুন্দী ও কচুয়া গ্রামে বেওয়ারিশ ক্ষ্যাপা কুকুরের কামড়ে ১৩ জন আহত হয়েছে। ২২ আগস্ট সোমবার দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত বেপরোয়া এ কুকুরটি যাকে সামনে পেয়েছে তাকেই কামড়িয়ে আহত করেছে বলে জানা গেছে ।

সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, লাল রংয়ের গলায় সাদা দাগের একটি কুকুর ২২ আগস্ট সোমবার সোনাতুন্দি ও কচুয়া গ্রামের মতিয়ার বিশ্বাস, বাঁধন, নাসির, সবদার, শাহীন, অরধ্যসহ ১৩ জনের শরীরের বিভিন্ন স্থানে কামড়িয়ে আহত করেছে। সামনে যাকে পাচ্ছে তাকেই কামড়াচ্ছে। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও মাগুরা ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এখনও কুকুরের আতঙ্কে রয়েছে পুরো এলাকা।

৬ষ্ট শ্রেনীর ছাত্র আহত বাঁধন জানান, সোনাতুন্দি বাজারে আমাদের দোকানের সামনে আমি বসে ছিলাম। সিসি ক্যামেরায় সব দেখা যাচ্ছিলো। কিছু বোঝার আগেই একটি লাল রংয়ের কুুকুর আচমকা আমার পায়ে কামড় বসিয়ে দেয়। স্থানীয় বাজারের এক ডাক্তারের কাছ থেকে ভ্যাকসিন নিয়েছি।

ইউপি সদস্য আব্দুল কাসেম জানান, একটি কুকুর এলাকার অনেক মানুষকে কামড়িয়েছে। এখন পুরো এলাকায় কুকুরের ভয়ে আতঙ্কিত রয়েছে। কুকুরটাকে মারা সম্ভব হয়নি। এলাকায় বেওয়ারিশ কুকুরের সংখ্যা ও অনেক বেড়ে গেছে। এখনই পদক্ষেপ না নিলে পরিস্থিতি আরো বেগতিক হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আশরাফুজ্জামান লিটন জানান, কুকুরে কামড়ানোর ভ্যাকসিন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেওয়া হয় না৷ কুকুরে কামড়ানো অনেক রোগীই আসছে। হাসপাতালে কেউ চিকিৎসাধীন নেই। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা ও বাইরের ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে৷ সকলেই বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছে এবং সকলেই আপাতত আশঙ্কামুক্ত।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম