1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
জালিয়াতি করে জমি আত্মসাৎ ও শ্লীলতাহানি চেষ্টার অভিযোগে এক দলিল লেখকের বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছল করেছে স্থানীয়রা। - দৈনিক শ্যামল বাংলা
সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ০৬:৩৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নবীনগরে কোটাপদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল রাউজানে তিনদিন ব্যাপী বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন রাউজানে ৬০ প্রজাতির ১ লাখ ৮০ হাজার ফলজ ও ঔষধি গাছের চারা রোপন কর্মসূচি উদ্বোধন মাগুরায় নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান শরিয়াতউল্লাহ হোসেন রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান  *জরুরী রক্ত প্রয়োজন*রক্তের গ্রুপ: AB+ (এবি পজেটিভ) ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চৌদ্দগ্রামে তিন ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর আ’লীগ-ছাত্রলীগের হামলা সারাদেশে ছাত্রসমাজের উপর মর্মান্তিক হামলার প্রতিবাদ ও কোটা সংস্কারের এক দফা দাবিতে দোহাজারীতে বিক্ষোভ মিছিল  এমএসআর’র ১ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা লুটপাট সমস্যায় জর্জরিত চট্টগ্রামের চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-অধিকাংশ চিকিৎসক অনুপস্থিত থাকেন নবীনগরে কুতুবিয়া দরবার শরীফে শাহাদাতে কারবালা মাহফিল অনুষ্ঠিত

জালিয়াতি করে জমি আত্মসাৎ ও শ্লীলতাহানি চেষ্টার অভিযোগে এক দলিল লেখকের বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছল করেছে স্থানীয়রা।

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০২৩
  • ১৫৯ বার

জালিয়াতি করে জমি আত্মসাৎ ও শ্লীলতাহানি চেষ্টার অভিযোগে এক দলিল লেখকের বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছল করেছে স্থানীয়রা। রবিবার (২২ জানুয়ারি) বিকেলে শরীয়তপুরের সখিপুর থানার ডিএমখালী ইউনিয়নের কাদির সরকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মিছিলে স্থানীয় নারী, পুরুষ, শিশু, বৃদ্ধ সহ বিভিন্ন শ্রেনীর লোকজন অংশ নেয়। দলিল লিখক হাবিব ভেদরগঞ্জ সাবরেজিষ্টার অফিসে কর্মরত। এর আগেও তার বিরুদ্ধে প্রতারনা করে জমি আত্মসাতের একাধিক অভিযোগ রয়েছে।

ভুক্তভোগী শফি মাদবরের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, কিছুদিন পূর্বে শফি মাদবরের পরিবার তার বোনের জমি ক্রয়ের জন্য দলিল লেখক হাবিবকে মধ্যস্থতার দায়িত্ব দেয়। ৮ লক্ষ টাকা বায়নাও করে তারা। কিন্তু জমির কাগজে বিভিন্ন ত্রুটি ও সমস্যার কথা বলে ভয় দেখিয়ে ঐ জমি নিজের নামে লিখে নেয় হাবিব।

শফি মাদবরের মেয়ে খাদিজার অভিযোগ, তাদের বায়নাকৃত জমি ক্রয়ের বিষয়টি জানার জন্য হাবিব মিয়াকে তাদের বাড়িতে ডাকলে সে তাদের শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এ সময় প্রতিবেশী ও পরিবারের লোকজন তাকে জুতাপেটা ও ধাওয়া খেয়ে সে জামা-কাঁপড় ফেলে পালিয়ে যায়।

স্থানীয় জুয়েল মাদবর বলেন, এর আগেও হাবিব অনেক মানুষের জমি প্রতারণা করে আত্মসাৎ করেছে। আমরা এলাকাবাসী সবাই তার প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে চাই। তার কু-কর্মের বিচার চাই।

স্থানীয় হনুফা বেগম বলেন, শফি মাদবরের কোন ছেলে নেই। ৫ মেয়ে নিয়ে কোন রকম করে জীবন-যাপন করে। হাবিব এর প্রতারণা থেকে তারাও বাদ পড়ে নাই। তার বিচার হওয়া উচিত।

কিন্তু দলিল লিখক হাবিব তার বিরুদ্ধে সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, নিয়ম মেনেই আমি সকল কাজ করি। একটি চক্র আমার সম্মানহানির জন্য উঠেপড়ে লেগেছে।

এ বিষয়ে সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান হাওলাদার বলেন, এ ধরনের কোন অভিযোগ এখনো আমাদের কাছে আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম