1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
শ্রীনগরে  ড্রেজার দিয়ে সরকারী জলাশয় ভরাট,  চরম দুর্ভোগে শতাধিক পরিবার - দৈনিক শ্যামল বাংলা
সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৫:৫৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
শরীয়তপুরে মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে কৃষকদের মানববন্ধন খুটাখালীতে স্বাধীনতা উৎসব উদযাপন পরিষদের মতবিনিময় সভা সম্পন্ন বাঁশখালীতে ওয়াজের দাওয়াত দিয়ে ডেকে নিয়ে মাওলানাকে মারধরের অভিযোগ দেলোয়ার সভাপতি-এরশাদ সম্পাদক চন্দনাইশ প্রেস ক্লাবের কমিটি গঠন ক্ষয়ক্ষতি ৫ লাখ টাকা, চন্দনাইশে দূর্বৃত্তদের আগুনে পুড়েছে ঘর ও দোকান। রাস্তা-ঘাটে কোনো ময়লা আবর্জনা ফেলা যাবে না- এমপি ফজলে করিম লালমনিরহাটে স্কুল ছাত্র সিক্তসহ সকল ছাত্র-ছাত্রীর উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে নিন্দা ও প্রতিবাদ সভা পাঠ্যপুস্তকে ভারতীয় আধিপত্যবাদ স্থান পেয়েছে তা বাতিল করতে হবে – আ ন ম এহসানুল হক মিলন জাতিকে ধর্মহীন করার জন্যই পাঠ্যপুস্তক থেকে মুসলমানদের ধর্ম বিশ্বাসকে বাদ দেওয়া হয়েছে- প্রফেসর চৌধুরী মাহমুদ হাসান লালমনিরহাটের বুড়িমারীস্হল বন্দরের শ্রমিকদের ন্যায্য ৭-দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে ধর্মঘট-সড়ক অবরোধ

শ্রীনগরে  ড্রেজার দিয়ে সরকারী জলাশয় ভরাট,  চরম দুর্ভোগে শতাধিক পরিবার

আব্দুর রকিব,শ্রীনগর মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধঃ
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২২ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ১৬ বার

মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগরে ড্রেজার দিয়ে সরকারী প্রায় ৩ কোটি টাকা মূল্যের জলাশয় ড্রেজার দিয়ে বালু ভরাট করে দখলের অভিযোগ উঠেছে ভাগ্যকুল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান একূল খাঁন এর বিরুদ্ধে । শ্রীনগর- দোহার সড়কের বালাসুর বাজার রশিত টাওয়ার সংলগ্ন জলাশয়টিতে বেশ কয়েকদিন ধরে চালাচ্ছে এই ভরাট কার্যক্রম । খাল ভরাটের  কারনে প্রায় শতাধিক  বাড়ির উঠান জলা বদ্ধতা তৈরী হয়েছে। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছে এ পরিবারের লোকজন।

গতকাল শনিবার দুপুরে সরে জমিনে গিয়ে দেখাযায়, কামার গাঁও মৌজার আরএস – ৮০৭৯ ও ৮০৮১ দাগে প্রায় তিন একর পরিমাপের জলাশয়টি ভরাট চলছে। এর মধ্যে এক এখন জালাশয় সরকারী। ড্রেজার দিয়ে বালু কোয়াটার কারণে এই জলাশয় সংলগ্ন বাড়ি গুলোতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে । 

 

এলাকাবাসী জানায়, এলাকার শতাধীক পরিবার এই জলাশয়টি দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহার করে আসছিল। একূল খাঁন সহ ড্রজার ব্যবসায়ী  সাহ আলম সারেং,  রিংকূ ও কাসেম জলাশয় ভরাটের কাজ করছে। তারা প্রভাবশালী হয় তাদের বিরুদ্ধে গিয়ে আমরা কিছু বলতেও পারছি না। এখন আমাদের উঠানের পানি সরানোর আর কোনও জায়গা নেই। 

এ ব্যাপারে সাবেক চেয়ারম্যান একূল খাঁনের  কাছে জানতে চাইলে তিনি মুঠোফোনে বক্তব্য দিতে রাজি হননি।

 শ্রীনগর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, আমি কালকে সরেজমিনে গিয়ে বিষয়টি দেখব।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম