1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
নির্লজ্জতা, বেহাইয়া ও জনগণের সাথে ভাওতাবাজি ডামির নাটক করেছে ৭ জানুঃ নির্বাচন বাংলাদেশের ইতিহাসের একটি কালো অধ্যায়। - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ১২:৪১ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নবীনগরে কোটাপদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল রাউজানে তিনদিন ব্যাপী বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন রাউজানে ৬০ প্রজাতির ১ লাখ ৮০ হাজার ফলজ ও ঔষধি গাছের চারা রোপন কর্মসূচি উদ্বোধন মাগুরায় নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান শরিয়াতউল্লাহ হোসেন রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান  *জরুরী রক্ত প্রয়োজন*রক্তের গ্রুপ: AB+ (এবি পজেটিভ) ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চৌদ্দগ্রামে তিন ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর আ’লীগ-ছাত্রলীগের হামলা সারাদেশে ছাত্রসমাজের উপর মর্মান্তিক হামলার প্রতিবাদ ও কোটা সংস্কারের এক দফা দাবিতে দোহাজারীতে বিক্ষোভ মিছিল  এমএসআর’র ১ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা লুটপাট সমস্যায় জর্জরিত চট্টগ্রামের চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-অধিকাংশ চিকিৎসক অনুপস্থিত থাকেন নবীনগরে কুতুবিয়া দরবার শরীফে শাহাদাতে কারবালা মাহফিল অনুষ্ঠিত

নির্লজ্জতা, বেহাইয়া ও জনগণের সাথে ভাওতাবাজি ডামির নাটক করেছে ৭ জানুঃ নির্বাচন বাংলাদেশের ইতিহাসের একটি কালো অধ্যায়।

আল হাসান মোবারক নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৯ জানুয়ারি, ২০২৪
  • ৯২ বার

আজ ০৮/০১/২০২৪ ইং সমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গণঅধিকার পরিষদের (নুর) সাকাল ১১ ৩০ মিঃ ণগঅবস্থান কার্মসুচী পালন করে।

৭ জানুয়ারীর ২০২৪ ইং ভোটার বিহীন ডামির নির্বাচনের ন্যায়বিচার, অধিকার গণতন্ত্র হত্যা একতরফা প্রহসনের ভোটের প্রতিবাদে মুখে কালো কাপড় বেঁধে জাতীয়স্বার্থে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে গণঅধিকার পরিষদ (নূর)।গণঅধিকার পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রবিউল হাসানের সঞ্চালনায়।

সভপতি নরুল হক নূর বক্তব্যে বলেন আওয়ামী লীগ জনগণের সাথে বেইমানি করেছে। আর দেশের মানুষ আপনাদের কে প্রত্যাক্ষান করেছে তার পরেও এই বেহাইয়ার মতো নির্লজ্জের মত কথা বলছে আওয়ামীলীগ নেতারা। আমাদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কথা কম বলেন তিনি একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন তাই আমরা তাকে সম্মান করি। কিন্তু আমরা বিভিন্ন পত্রপত্রিকার মাধ্যমে জানতে পারি, তিনি বলেছেন এদেশে ভারত বিরোধী সহ্য করা হবে না। মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলতে চাই, এদেশে ভারত বিরোধিতা সহ্য করতে না পারেন তাহলে ভারতে চলে যান।
সরকার ক্ষমতায় থাকার জন্য আপনারা আওয়ামীলীগ আজকে মন্ত্রী, ডিজেএফআই, এনএসআই, এন এস আই, প্রশাসনের দালালরা আজকে সামরিক বাহিনী পুলিশ বাহিনী সমস্ত জায়গায় ” র” আস্তানা গড়ে তুলেছে, তারা আজকে বাংলাদেশ বাংলাদেশকে ভারতকে তাবেদার রাষ্ট্রে পরিনত করতে চায়। দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব বিপন্ন করে বাংলাদেশকে করত রাজ্য পরিনতি করতে চায়। যে কারণে ৭ জানুয়ারী ফেলানি হত্যা দিবসে এই ডামি নির্বাচন নির্বাচনে নাটক করেছে। তারা ভারতীয় দালাল রাষ্ট্রদ্রোহী ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে হয়েছে।
তিনি বলেন আপনাদের প্রতি আমাদের আহ্বান থাকবে আমাদের কে গণতন্ত্রের লড়াইয়ে অব্যাহত রাখতে হবে। জনগণের বিজয় না হওয়া পর্যন্ত। এই লড়াইয়ে বিজয় না পর্যন্ত গণধিকার পরিষদের অগ্রনী ভূমিকা থাকবে।
তিনি আরো বলেন আজকে রাষ্ট্রের হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করে একজনকে দেবতা বানানোর নাটক, সিনেমা বানিয়ে ছিল কিন্তু জনগণ কি বলছে, জনগণ বলছে মুজিব থেকে হাসিনা ফ্যাসিবাদ মানিনা, বাকশাল মানিনা।
১৪ ও ১৮ সালে নির্বাচনের পর কঠোর কোন আন্দোলন হয় নাই। তাই বাংলাদেশের ৬৩ টি রাজনৈতিক দল নির্বাচন বর্জন করেছে তারা ও বিএনপির সহ সকল রাজনৈতিক দল একসাথে দূর্বার আন্দোলন করার মাধ্যমে এই অবৈধ সরকার কে ক্ষমতা থেকে বিতাড়িত করবো।

সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ রাশেদ খান বলেন বলেন গতকাল ইতিহাসের একটি কালো দিন গেছে গতকাল কোন নির্বাচন হয়নি নির্বাচনের নামে ভাঁওতাবাজি কারা হয়েছে নির্বাচনের নামে রাষ্ট্রীয় ওস্তাগার থেকে হাজরা কোটি টাকা নষ্ট করা হয়েছে। জনগনে ভোট অধিকার লুন্ঠন করা৷ হয়েছে প্রধনমন্ত্রী চিন্তায় আছেন বিরুদ্ধী দল কে হবে। জাতীয় পার্টি একটি বেইমান পার্টি,
বাংলাদেশ এখন বড় সংকট সংসদে বিরোধী দল কাকে বানাবেন।
আজকে শেখ হাসিনা বাংলাদেশর নির্বাচন ব্যবস্থাকে নির্বাসনে পাঠিয়েছে, এই হাবিবি আউয়াল নির্বাচন কমিশন নির্লজ্জ বেহাইয়া কমিশন ২৮ % ভাগ করেছে আবার একটু পরে বলে ৪০ % ভোট পরেছে। আওয়ামিলীগের পরিকল্পনা ছিল ৭০ % ভোট কিন্তু জনগণ ভোট কেন্দ্র যাইনি তাই বানাতে পারে নাই, আমরা দেখেছি ১৪, ১৮ সালে ভোট কেন্দ্র গুলোতে কুকুর বেড়াল ঘুরাঘুরি করেছে এবার দেখেছি নতুন সংযোজন কুকুর বিড়ালের সাথে ভেড়ার পাল ঘুরাঘুরি করেেছে। এই হচ্ছে আওয়ামী লীগের অর্জন।
তিনি আরও বলেন আওয়ামীলীগ যদি ক্ষমতা হারায়, আওয়ামী লীগ কি আর বাংলাদেশে রাজনীতি করার সেই পরিবেশে রাখে নাই।
গতকাল একজন বিদেশি নির্বাচন পর্যবেক্ষক কেমন আছেন বাংলাদেশে নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে, উত্তর কোরিয়া মতন । আজ বাংলাদেশ একটি উত্তর কোরিয়ার মত দেশ হতে যাচ্ছে। এই আমরা চাই নি আমার ৩০ লক্ষ শহিদ ও ২ লক্ষ মা বোনদের ইজ্জত এর বিনিময়ে স্বাধীনতা এনেছি আজ আওয়ামিলীগ স্বাধিনতা চেতনার সাথে বেইমানি করেছে,কারন মুক্তিযোদ্ধের চেতনা গণতন্ত্র, ভোটাধিকার, ৭০ সালে নির্বাচনে পর ক্ষমতা দেওয়া হয় নি যে কারণে শুধু মাত্র ভোটের অধিকার হরনে কারনে পাকিস্তান থেকেব আমরা স্বাধিন হয়েছি।আমরা ৭০ সালের নির্বাচনের কথা ভূলি নাই। এই আওয়ামিলীগ ভোটের অধিকার লুলন্ডিত করেছে।
আওয়ামীলীগ তথাকথিত মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ধাকর বাহক তারা গনতন্ত্র কে ভলুন্ঠিত করেছে, সুতরাং এখন আমাদের কি করা উচিৎ যে কারণে আমরা মুক্তিযুদ্ধ করে ছিলাম সেই একই কারণে আওয়ামীলীগের বিরোদ্ধে আমাদের দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধ করতে হবে। আর সেই দ্বিতীয় মুক্তযোদ্ধে গণ অধিকার পরিষদ কে অগ্রনী ভূমিকা পালন করতে হবে।
আরও বক্তব্য রাখেন – গণঅধিকার পরিষদের উচ্চতর পরিষদের সদস্য আবু হানিফ, মোঃ শাকিল উজ্জামান, মোঃ শহিদুল ইসলাম ফাহিম, আব্দুজ জাহের, অ্যাডভোকেট সরকার নুরে,মোঃ এরশাদ সিদ্দিকী, জসিম উদ্দিন আকাশ, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাসান আল মামুন, সহস্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক মোঃ সাইফুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় নেতা রবিউল ইসলাম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি নাজিম উদ্দিন,  উত্তরের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম, যুব অধিকার পরিষদের সভাপতি মনজুর মোর্শেদ, সাধারণ সম্পাদক নাদিম হাসান, পেশাজীবী অধিকার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন, ছাত্র অধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তারিকুল ইসলাম, শ্রমিক অধিকার
পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা এবং উপস্থিত ছিলেন গণ দিকের পরিষদের নেতা কর্মীবৃন্দ।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম