1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
লালমনিরহাটে শিশুকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি - দৈনিক শ্যামল বাংলা
সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ০৮:৩৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নবীনগরে কোটাপদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল রাউজানে তিনদিন ব্যাপী বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন রাউজানে ৬০ প্রজাতির ১ লাখ ৮০ হাজার ফলজ ও ঔষধি গাছের চারা রোপন কর্মসূচি উদ্বোধন মাগুরায় নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান শরিয়াতউল্লাহ হোসেন রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান  *জরুরী রক্ত প্রয়োজন*রক্তের গ্রুপ: AB+ (এবি পজেটিভ) ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চৌদ্দগ্রামে তিন ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর আ’লীগ-ছাত্রলীগের হামলা সারাদেশে ছাত্রসমাজের উপর মর্মান্তিক হামলার প্রতিবাদ ও কোটা সংস্কারের এক দফা দাবিতে দোহাজারীতে বিক্ষোভ মিছিল  এমএসআর’র ১ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা লুটপাট সমস্যায় জর্জরিত চট্টগ্রামের চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-অধিকাংশ চিকিৎসক অনুপস্থিত থাকেন নবীনগরে কুতুবিয়া দরবার শরীফে শাহাদাতে কারবালা মাহফিল অনুষ্ঠিত

লালমনিরহাটে শিশুকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি

লাভলু শেখ লালমনিরহাট।
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০২৪
  • ৭৬ বার

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় সাড়ে ৩ বছরের এক শিশুকে অপহরন করে ২ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবি করেছে অপহরনকারী চক্র। মঙ্গলবার ১৬ জানুয়ারী দুপুরে অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন আদিতমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদ উন নবী।

অপহৃত শিশু সামিউল ইসলাম ওই উপজেলার মহিষখোচা ইউনিয়নের রসুল পাড়া গ্রামের স্বপন মিয়ার ছেলে।

অভিযোগে জানা গেছে, স্ত্রীর সাথে সম্পর্কের বিচ্ছেদ ঘটলে সন্তান সামিউল ইসলামকে তার দাদা মোক্তার হোসেনের কাছে রেখে ঢাকার নারায়নগঞ্জে কাজে যান স্বপন মিয়া। সেখানে পরিচয় হয় মামুন নামের নীলফামারীর এক ছেলের সাথে। এক পর্যায়ে তাদের মাঝে সম্পর্কের অবনতি ঘটে। তখন স্বপনকে ঝামেলায় ফেলার হুমকী দেন মামুন মিয়া। কিছুদিন আগে কর্মস্থল থেকে বাড়ি ফিরেন মামুন ও স্বপন। যে যার বাড়িতেই অবস্থান করছিলেন। গত শুক্রবার ১২ জানুয়ারী বিকেলে পারিবারিক কাজে লালমনিরহাট যান স্বপন মিয়া। এ সময় তার সন্তানকে বাড়ির উঠানে খেলতে দিয়ে পাশের বাজারে যান স্বপনের বাবা মোক্তার হোসেন। ফিরে এসে দেখেন শিশু সামিউল ইসলাম বাড়িতে নেই। অনেক খোঁজাখুজির পরে কোন সন্ধান মেলাতে পারেনি তার পরিবার। শনিবার ১৩ জানুয়ারী সকালে শিশু সামিউলের বাবা স্বপনের ব্যবহৃত নম্বরে ফোন আসে মামুনের ০১৭৩৭১১৮১৯১ নম্বর থেকে। সে সময় বলা হয়, শিশু সামিউল তার কাছে আছে অক্ষত অবস্থায় ফিরত পেতে ২ লাখ টাকা পাঠাতে হবে। অন্যথায় শিশু সামিউলকে পাওয়া যাবে না। একথা বলেই ফোন কেটে দিয়ে অফ করে রাখে।

এ ঘটনায় ওই নম্বরটি উল্লেখ করে মামুনের বিরুদ্ধে আদিতমারী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন সামিউলের বাবা স্বপন মিয়া। অভিযোগ দায়ের করার পর রোববার ১৪ জানুয়ারী পুর্নরায় ফোন করে মুক্তিপনের টাকা দাবি করে মামুন।

অপহৃত শিশু সামিউলের বাবা স্বপন মিয়া বলেন, ফোন করে ২ লাখ টাকা পাঠাতে বলেছে। নয়তো আমার ছেলেকে ওরা (মামুন) ক্ষতি করবে। থানায় অভিযোগ দেয়ার পরেও রোববার ফোন করে টাকা পাঠাতে বলেছে। নয়তো তারা আমার ছেলেকে ছেড়ে দিবে না।

আদিতমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদ উন নবী বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম