1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
আজও বেলা ১১টায় শিশু-কিশোরদের জন্য গ্রন্থমেলার ফটক খোলা হবে - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২, ০৯:২৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
সৈয়দপুরে ১ সন্তানের জনকের লাশ উদ্ধার স্বদেশের আবৃত্তি সংগঠনের মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব আবৃত্তি অনুষ্ঠান চন্দনাইশে শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমীতে নজরুল ইসলাম চৌধুরী এমপি চন্দনাইশে ৬ হাজার ৮’শ পিচ ইয়াবাসহ আটক-১ কুষ্টিয়া জেলা যুবমৈত্রীর কমিটি: সভাপতি মনিরুজ্জামান মজনু, সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা মীরসরাইয়ের ওচমানপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে শোকসভা বরেণ্য সাংবাদিক সরকার আদম আলী এর স্মরণে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত। সৈয়দপুরে স্বেচ্ছাসেবক দলের বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা সাংবাদিক আক্তার হোসেনের মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত! হাটহাজারী উপজেলা ও পৌরসভা যুবদলের কমিটি ঘোষণায় আনন্দ মিছিল

আজও বেলা ১১টায় শিশু-কিশোরদের জন্য গ্রন্থমেলার ফটক খোলা হবে

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৭৪ বার

মোহাম্মদ অলিদ সিদ্দিকী তালুকদার :
একুশে গ্রন্থমেলায় শিশু-চত্বরে সিসিমপুরের বিভিন্ন চরিত্রের সাথে শিশুদের উল্লাস ছিল
প্রথম শিশু প্রহরে গতকাল শিশুদের কলরবে মুখরিত ছিল বইমেলা প্রাঙ্গণ। বেলা এগারোটা থেকে শিশু-কিশোরদের ভিড় ছিল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের প্রবেশ গেটে। কেউ বাবা-মায়ের হাত ধরে, কেউ বন্ধুদের সাথে আবার কেউ শিক্ষকদের সাথে এসেছে প্রাণের মেলায়।
মেলার শিশু চত্বরে খুদে পাঠকরা স্টলে স্টলে খুঁজতে থাকে তাদের পছন্দের বই। ছোটাছুটির মধ্যে নতুন বই বুকে জড়িয়ে বাড়ি ফিরেছে তারা। শিশুদের আগমনে অন্যান্য দিনের চেয়ে গতকালের বইমেলা ছিল বেশি প্রাণচঞ্চল।
মেলায় অন্যতম আকর্ষণ ছিল সিসিমপুর। বেশির ভাগ শিশুরই ঝোঁক দেখা গেছে সিসিমপুরের স্টলের দিকে। যেখানে শিশুদের জন্য আকর্ষণীয় সব মজার মজার বই সাজানো রয়েছে। শিশু চত্বরে সিসিমপুর স্টলের সামনে বটতলাকে নান্দনিকভাবে সাজানো হয়েছে। সেখানে শিশুরা হইহুল্লোড় আর খেলাধুলায় মেতেছে। এ ছাড়া শিশুদের মাতিয়ে রাখতে জনপ্রিয় এ কার্টুন সিরিজের ‘টুকটুকি’, ‘হালুম’, ‘শিপু’ আর ‘ইকরি’ও হাজির ছিল। মঞ্চে তাদের নানা উপস্থাপনা শিশুদের আনন্দ বাড়িয়ে দেয়। সব মিলিয়ে বইমেলা পরিণত হয়েছিল শিশুদের আনন্দমেলায়। গ্রন্থমেলার জ্ঞানের ভুবনে শিশুদের আগমন উৎসাহিত করতে আয়োজনও ছিল বাংলা একাডেমির পক্ষ থেকে। সকাল সাড়ে ৮টায় ছিল শিশু চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা। উদ্বোধন করেন বরেণ্য চিত্রশিল্পী রফিকুন নবী। শিশু প্রহর শেষে বেলা ১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা ছিল সবার জন্য উন্মুক্ত।
গতকাল সাপ্তাহিক ছুটির দিন থাকায় অন্যান্য দিনগুলোর তুলনায় ক্রেতা ছিল বেশি। তবে নির্ধারিত কিছু প্যাভিলিয়নে কিছুটা ভিড় লক্ষ করা গেলেও বেশির ভাগ স্টল ছিল ক্রেতাশূন্য। এর মধ্যেই বিক্রির শীর্ষে থাকা বইগুলোর মধ্যে ছিল শিশু-কিশোরদের সায়েন্স ফিকশন, ভূতের গল্প, কৌতুক এবং ছড়াসহ নানা ধরনের সব বই।
মেলায় আজো রয়েছে শিশু প্রহর। শিশু-কিশোর-কিশোরীদের জন্য বেলা ১১টায় খুলবে মেলার কপাট। এ সময়ে শিশু-কিশোর আর তাদের সাথের অভিভাবক ছাড়া অন্যরা মেলায় প্রবেশ করতে পারবেন না। ১টার পর সবার জন্য উন্মক্ত করে দেয়া হবে মেলা প্রাঙ্গণ।
কলাবাগান থেকে ছেলে নয়নকে নিয়ে মেলায় এসেছেন মারুফ ছামিয়া দম্পতি। তারা জানান, মেলার প্রথম দিন থেকেই ছেলের মেলায় আসার আবদার। তাই শুক্রবার ছুটির দিনে ওকে নিয়ে মেলায় আসা। নারায়ণগঞ্জ থেকে ¯স্কুলশিক্ষিকা শায়লা শিক্ষার্থীদের নিয়ে মেলায় এসেছেন। জানতে চাইলে তিনি বলেন, মেলায় এলে শিশুদের বইয়ের প্রতি আগ্রহ বাড়ে। তারা বিভিন্ন লেখকের বই সম্পর্কে জানতে পারে। সবার উচিত শিক্ষার্থীদের নিয়ে বইমেলায় আসা। তিনি জানান, শিক্ষার্থীদের বেশি পছন্দ সায়েন্স ফিকশনের বই।
এ দিকে মেলায় দি- ইউনিভার্সেল একাডেমি প্যাভিলিয়ন( চার) এ এসেছে প্রাকৃতজ শামিমরুমি টিটনের ” ভালোবাসা প্রেমের কবিতা সমগ্র ” ( প্রেমের ঘরে সবই ফাঁকা অন্তর ঘরে আমি একা-) এবং দেশপ্রেমের কবিতা সমগ্র -” রক্তেভেজা স্বাধীনতা ও জীবনের দেনা ” প্রাকৃতজ শামিমরুমি টিটন )। এছাড়াও দি ইউনিভার্সেল একাডেমিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর ডক্টর ইমেরিটাস এমাজউদ্দীন আহমদ এর তিনটি সিরিজ বই ” গণতন্ত্র এখন ও গণতন্ত্রের শত্রু মিত্র এবং গণতন্ত্রের ভবিষ্যৎ ” সহ আরও অন্যান্য খ্যাতিমান লেখকদের বই এই প্রকাশনায় পাওয়া যাচ্ছে উক্ত প্রকাশনার মহা পরিচালক এ.এস.এম.শিহাব উদ্দীন ভুঁইয়া আশানুরূপ গতকাল শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিন হিসেবে মেলায় আগত দর্শক শ্রোতাদের উপস্থিতি ভালো ছিল । গত ছয় দিনের তুলনায় আজ শুক্রবার অন্যদিনের তুলনায় বেচা বিক্রি কিছুটা ভালো হয়েছে । যত সময় যাবে মেলায় আগত দর্শক শ্রোতাদের উপস্থিতি আরও বাড়বে সেই সাথে বিক্রির অবস্থা ও বাড়বে বলে মনে করেন এই প্রকাশক।
কবি হেলাল হাফিজের দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘বেদনাকে বলেছি কেঁদো না’। বইটি প্রকাশ করেছে ‘দিব্য প্রকাশ’। আবদুল গাফফার চৌধুরীর, ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ ও শেখ হাসিনা’, আব্দুর রউফ চৌধুরীর ‘বাইবেল নবী মুহাম্মদ’, সুধাংশু শেখর বিশ্বাসের ‘ঘুরে দেখা আমেরিকা’, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘সোনার তরী’, বইগুলো প্রকাশ করেছে আগামী প্রকাশনী। এ ছাড়া আছে সাংবাদিক সাজেদা পারভীন সাজুর প্রথম কবিতার বই ‘সময়’। লেখকের নিজস্ব আবেগ আর বাস্তবতার মিশেলে লেখা হয়েছে কবিতাগুলো। কাব্যগ্রন্থটি পাওয়া যাবে বইমেলার স্টুডেন্ট ওয়েজের ২০ নম্বর প্যাভিলিয়নে।
গতকাল ষষ্ঠ দিনে বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলায় প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন খায়রুল আলম সবুজ এবং আনিসুল হক। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি এমরান কবির চৌধুরী। সন্ধ্যায় ছিল কবিকণ্ঠে কবিতাপাঠ, আবৃত্তি এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম