1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
সম্রাট থেকে পাপিয়া; আওয়ামী লীগের শক্ররা! - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৫৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
শ্রেণীকক্ষ সংকটে পাঠদান ব্যাহত, জরুরি ভিত্তিতে ভবন প্রয়োজন নোয়াখালীতে ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে জখম, প্রতিষ্ঠান ভাঙচুর ও লুট দেশে মেডিকেল ডিভাইস তৈরি করলে তা সাধারণ মানুষের কাছে সহজলভ্য হবে’ -স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন নবীগঞ্জ শহরের রাজা কমপ্লেক্সে হামলা ভাংচুর ও ৪ ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষ! শহর রণক্ষেত্র- আহত অর্ধশতাধিক৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশের টিয়ারসেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ৷ লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনে যাত্রী ভোগান্তির শিকার দেখার কেউ নেই। চৌদ্দগ্রামে মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে ট্রাই সাইকেল বিতরণ চৌদ্দগ্রামের বাতিসায় জাতীয় পার্টির উদ্যোগে ইফতার সামগ্রী বিতরণ ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান হাবিবের ১৮তম মৃত্যুবার্ষিকী পালন ঠাকুরগাঁও জমে উঠেছে জেলা পরিষদ নির্বাচন ! মোঃ মজিবর রহমান শেখ,

সম্রাট থেকে পাপিয়া; আওয়ামী লীগের শক্ররা!

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
  • ১৩৩ বার

মোহাম্মদ অলিদ সিদ্দিকী তালুকদার :
ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটসহ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতার ক্যাসিনোকাণ্ডের রেশ কাটতে না কাটতেই দলটির স্থানীয় পর্যায়ের নেতবৃন্দর নতুন কেলেঙ্কারি জনসম্মুখে এসেছে। বাংলাদেশ মহিলা যুবলীগের এক স্থানীয় পর্যায়ের নেত্রীর অপকর্মের খবর আজ সারাদেশে তোলপাড় ফেলেছে। র‌্যাব তাকে গতকাল আটক করেছে। গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ দলের ভিতর শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছে। এই সময় আইন প্রয়োগকারী সংস্থা মতিঝিল ক্লাব পাড়ায় অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ ক্যাসিনো সামগ্রী উদ্ধার করেছে। এর পরপরই যুবলীগ নেতা খালেদ হোসেন ভুইয়া, ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটসহ বেশ কয়েকজন নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছিল যুবলীগের চেয়ারম্যান, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ বেশ কিচু গুরুত্বপূর্ণ নেতাকে। আওয়ামী লীগ রাজনৈতিকভাবে শুদ্ধি অভিযানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিল। যারা দলের বিতর্কিত, দলের পরিচয় ব্যবহার করে নানা রকম অপকর্ম করছে তাদেরকে দলে স্থান না দেওয়ার জন্য আওয়ামী লীগ সভাপতি কঠোর বার্তা দিয়েছিলেন। কিন্তু সাম্প্রতিক সময় শামীমা নূর পাপিয়া ওরফে পিউর ঘটনায় আবার দেখা গেছে দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকার ফলে আওয়ামী লীগের মধ্যে যে বিভিন্ন অপকর্মকারী- অপরাধীরা ঘাপটি মেরে আছে তারা দলটিকে কতটা কলংকিত করতে তা বের হয়ে আসছে। আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে তারা। পাপিয়ার এই ঘটনা নিয়ে এখন আওয়ামী লীগের মধ্যে ব্যাপক আলোচনা চলছে। আওয়ামী লীগের অনেক নেতা বলছেন, যে শুদ্ধি অভিযান শুরু হয়েছে সেই শুদ্ধি অভিযান বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর এখন আবার দুর্বিত্তরা দলটিকে অভয়ারন্যে পরিণত করছে। সরকার দলীয় দলটির পরিচয় ব্যবহার করে সমাজের বিভিন্ন অনিয়ম স্বেচ্চাচারিতা করছে। এগুলো যদি বন্ধ না করা হয় তাহলে আওয়ামী লীগের জন্য আদর্শিক মান ধরে রাখা কঠিন হয়ে যাবে।

আওয়ামী লীগের একজন নেতা বলেছেন, দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকার ফলে বিভিন্ন স্তরের অনুপ্রবেশকারীরা ঢুকে গেছে এবং এরা দলীয় পরিচয় ব্যবহার করে নানারকম অপপ্রচার করছে। আওয়ামী লীগের আদর্শিক মান নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত দলের মধ্যে প্রশ্ন উঠেছে। আর একারণে আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখা হাসিনা বারবার নির্দেশনা দেবার পরেও নির্দেশনা প্রতিফলিত হচ্ছেনা কেন সে ব্যাপারে আওয়ামী লীগের মধ্যে প্রশ্ন উঠছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, পাপিয়ার ঘটনার পর আওয়ামী লীগে নতুন করে শুদ্ধি অভিযানের দাবি উঠেছে। বিশেষ করে যারা আওয়ামী লীগের প্রতি নিবেদিত প্রাণ, দুঃসময়ের নেতাকর্মী তাঁরা মনে করছে, জাতির পিতার আদর্শে গড়া যে সংগঠনটি, সেই সংগঠনটি কিছু মানুষের কারণে বদনামের ভাগিদার হতে পারেনা।

বিশেষ করে, আওয়ামী লীগ যখন মুজিববর্ষ উদযাপন করছে, তাঁর প্রাক্বালে কিছু নেতাকর্মীর এধরণের ন্যাক্কারজনক ঘটনা দেশের সাধারণ মানুষের কাছে আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে। আর এখানেই আওয়ামী লীগকে এখনই ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিৎ। আওয়ামী লীগের নেতারা প্রশ্ন তুলেছে যে, কেন আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা গ্রেপ্তারের পর বা ধরা পড়ার পর এইসমস্ত দুর্বিত্ত নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে? আগে কেন দলের শীর্ষ নেতারা যারা দল পরিচালনা করেন তাঁরা কেন জানছেন না? নিশ্চয়ই দলের সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডের মাঝে বড় একটা ফাক রয়েছে, যেই ফাকগোলে এরা থেকে যাচ্ছে ধরাছোঁয়ার বাইরে এবং খুব শীঘ্রই আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা এই ব্যাপারটা নিয়ে বসবেন বলেও জানা গেছে এবং এইরকম যারা দলের পরিচয় ব্যবহার করে অপকর্ম করছে তাদেরকে আইনপ্রয়োকারী সংস্থা ব্যবস্থা গ্রহণের আগেই কিভাবে দলের ভেতর থেকে ব্যবস্থা নেয়া যায় এই চিন্তা আওয়ামী লীগের ভেতরে বড় হয়ে উঠেছে।

আওয়ামী লীগের নেতারা বলছে যে, এখনই যদি এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া না হয়, তাহলে আওয়ামী লীগের ভাল মানুষের জন্য জায়গা ক্রমশ সংকুচিত হয়ে যাবে এবং এই দলটি একটি দুর্বিত্তদের দলে পরিণত হবে। সেখান থেকে পরিত্রানের জন্য এখনই পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিৎ বলে মনে করছেন রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টরা।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম