1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
করোনাকালেও ভুয়াদের দৌরাত্ম্য? - দৈনিক শ্যামল বাংলা
মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০:২৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
যাত্রীবাহি বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেল চুয়েটের দুই শিক্ষার্থীর নবীগঞ্জে সাংবাদিকদের সঙ্গে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী সাংবাদিক সাইফুল জাহান চৌধুরীর মতবিনিময় নবীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বোরহান চৌধুরীর নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের মত বিনিময় সভা ঠাকুরগাঁওয়ে ঐতিহ্যবাহী বৈশাখী মেলাকে আবদ্ধ করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন চট্টগ্রামের চন্দনাইশে পুকুরে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু তীব্র তাপদাহে রাউজানে পথচারীদের মাঝে সুপেয় পানি বিতরণ মাগুরায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৬ পরিবারের প্রায় ১৫ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি! ছবি তোলার অপরাধে সাংবাদিক গ্রেফতার, অত:পর মুক্তি নবীনগরে প্রারম্ভিক শিশু বিকাশ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত মহাকবি আল্লামা ইকবালের ৮৬তম মৃত্যুবার্ষিকী পালন

করোনাকালেও ভুয়াদের দৌরাত্ম্য?

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৮ জুলাই, ২০২০
  • ১৫০ বার

বিশেষ প্রতিবেদক মোহাম্মদ অলিদ সিদ্দিকী তালুকদার:

মরণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণকালে মানুষজনের দুর্ভোগের কোনো সীমা নেই। অথচ এই দুর্ভোগকেই পুঁজি করে কেউ কেউ টুপাইস কামানোর ধান্ধায় মত্ত। করোনাচিকিৎসা নিয়ে রিজেন্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যা করেছে তা অচিন্ত্যনীয় এবং অমার্জনীয় অপরাধ।

পুলিশ বলছে, ‘করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে আসা এবং বাড়িতে থাকা রোগীদের করোনার নমুনা সংগ্রহ করে ভুয়া রিপোর্ট প্রদান করত রিজেন্ট হাসপাতাল। এছাড়াও সরকার থেকে বিনামূল্যে কোভিড-১৯ টেস্ট করার অনুমতি নিয়ে রিপোর্ট প্রতি সাড়ে তিন থেকে চার হাজার টাকা করে আদায় করত তারা। এভাবে জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করে মোট ৩ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে রিজেন্ট হাসপাতাল। এই সমস্ত অপরাধ ও টাকার নিয়ন্ত্রণ চেয়ারম্যান সাহেব (রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহেদ) নিজে করত।

গত ৬ জুলাই উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতালের নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে অভিযান শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম। অনিয়মের অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতাল সিলগালা করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে আটজনকে। পরিচালকের বিরুদ্ধেও মামলা করা হয়েছে। আমরা আশা করবো অপরাধীদের যথাযোগ্য শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।

রিজেন্ট হাসপাতালের লাইসেন্সের মেয়াদ ২০১৪ সালে শেষ হওয়ার পরও কেন রিজেন্ট হাসপাতালকে কোভিড বিশেষায়িত হাসপাতাল ঘোষণা করা হয়- এ নিয়েও জোরালো প্রশ্ন রয়েছে। রিজেন্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কয়েকটি অনিয়ম ও প্রতারণার প্রমাণ পেয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

প্রথমত, করোনা টেস্টের জন্য আসা রোগীদের বিনামূল্যে নমুনা সংগ্রহ করার কথা ছিল রিজেন্টের। প্রায় ১০ হাজার জনের কাছ থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হলেও প্রত্যেকের কাছ থেকে তারা টাকা নিয়েছে। দ্বিতীয়ত, এসব নমুনার অর্ধেকের বেশি পরীক্ষা না করেই রিপোর্ট দিয়েছে, যা সম্পূর্ণ প্রতারণা।

এছাড়া রিজেন্ট সরকারকে জানিয়েছে তারা কোভিড-রোগীদের ফ্রি চিকিৎসা দিচ্ছে। এই বলে তারা সরকারের কাছে ক্ষতিপূরণ ক্লেইম করেছে। অথচ অনেক রোগীর কাছ থেকেও তারা দেড় লাখ-দুই লাখ, আড়াই লাখ টাকা পর্যন্ত বিল আদায় করা হয়েছে।

সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন হাসপাতাল-ক্লিনিকে চিকিৎসাসেবার মানবৃদ্ধির ওপর স্বাস্থ্যখাতের অগ্রগতি নির্ভর করে। এ কারণে ভুয়া ডিগ্রি, পদবি ব্যবহারকারী এবং ভুল চিকিৎসা প্রদানকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরকে এ ব্যাপারে কার্যকর ভূমিকা পালন করতে হবে। চিকিৎসার মতো মৌলিক অধিকার নিয়ে শৈথিল্য দেখানোর কোনো সুযোগ নেই।

লেখকঃ বিশেষ প্রতিবেদক শ্যামল বাংলা ডট নেট -| সাবেক কাউন্সিলরঃ বিএফইউজে-বাংলাদেশ ও সদস্য ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন ( ডিইউজে )

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম