1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
এবার বাঁশখালী কমল স্মৃতি সংসদের সভাপতি জালাল বহিষ্কার - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৩৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নকলায় ভাই বউয়ের লাঠির আঘাতে ভাসুর নিহত: মা-মেয়ে আটক ঈদগাঁওতে আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভায় ডিসি নির্বাচন সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর ঠাকুরগাঁওয়ে যৌতুক ছাড়াই একসাথে বিবাহ করলেন দুই বন্ধু ! মোঃ মজিবর রহমান শেখ, ঠাকুরগাঁও জেলা Best Totally Free Dating Websites in 2024 বাঁশখালীতে সড়ক সংস্কার কাজের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন সাংসদ মুজিবুর রহমান মাগুরায় ডেন্টাল সোসাইটি’র নির্বাচনে সভাপতি ডাঃ সুশান্ত ও সাঃ সম্পাদক ডাঃ ইমন পুনঃ নির্বাচিত ঠাকুরগাঁওয়ে বালিয়াডাঙ্গীতে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শন অনুষ্ঠিত হয়েছে ঠাকুরগাঁও জেলা আইন শৃংখলা কমিটির সভা চৌদ্দগ্রামে প্রাণীসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত প্রবীন আ’লীগ নেতা মোজাফফর আহমেদ

এবার বাঁশখালী কমল স্মৃতি সংসদের সভাপতি জালাল বহিষ্কার

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৩ জুলাই, ২০২০
  • ১৩৫ বার

বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি :
অর্থ কেলেঙ্কারীর দায়ে আজিম উদ্দিনকে বহিষ্কারের পর এবার সংগঠন বিরোধী কার্যকলাপে
জড়িত থাকার অভিযোগে বাঁশখালী কমল স্মৃতি সংসদের সাবেক সভাপতি জালাল উদ্দীনকে সকল পদবী হতে আজীবনের বহিষ্কার করা হয়েছে।

সংগঠনের নীতি নির্ধারণী গত ১ জুলাই এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ আদেশ জারি করেন। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় জালাল উদ্দিন এবং আজিম উদ্দিন অতীতে বাঁশখালী কমল স্মৃতি সংসদের দায়িত্বে থাকা অবস্থায় অর্থকেলেঙ্কারী সহ নানা অনিয়মের অভিযোগে রয়েছে। তাই সংগঠনের নীতি নির্ধারণী আজীবনের জন্য তাদেরকে বহিষ্কার করেছে। সুতরাং বাঁশখালী কমল স্মৃতি সংসদের কোন সদস্য সাংগঠনিক কোন বিষয়ে তাদের সাথে সর্বপ্রকার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করার নির্দেশ প্রদান করা করেন। বলা হয়, বহিষ্কৃত সদস্যদের সাথে বাঁশখালী কমল স্মৃতি সংসদের কোন প্রকার সম্পর্ক নাই।

বাঁশখালী কমল স্মৃতি সংসদ ২০১৬ সালে প্রতিষ্ঠিতা হওয়ার পর হতে এপ্রথম অনিয়মের অভিযোগে পরপর দুই সদস্যকে অব্যহতি প্রদান করেন সংগঠনের নীতি নির্ধারনী। প্রতিষ্ঠার পর থেকে সমাজ উন্নয়নে বেশ সুনাম অর্জন করে আসছিলো সংগঠনটি। গত ২৬ জুন অনুষ্ঠিত জরুরী সভায় সর্বসম্মতিক্রমে দায়িত্বে থাকা সাধারণ সম্পাদক আজিম উদ্দীনকে আর্থিক অনিয়মের অভিযোগে বহিষ্কার করা হয়।

সংগঠনের উপদেষ্টা ও প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক ও সাবেক নির্বাচন কমিশনার ওসমান গনি মোজাহিদ, শওকতুল ইসলাম ও নূরুল মোস্তাফা সিকদারের যৌথ স্বাক্ষরিত এক নোটিশে এ বহিষ্কার আদেশ জারি করেন।

এর আগে বৈশ্বিক মহামারি (কভিট-১৯) করোনা ভাইরাসের চলমান সংকটকে পুজি করে বাঁশখালী কমল স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক আজিম উদ্দিন সংগঠনের পদ ব্যবহার করে দেশে এবং দেশের বাইরে সংগঠনের শুভাকাঙ্খীদের নিকট ত্রাণ বিতরণের নামে অর্থ কালেকশন করে। আর সেই কালেকশনকৃত অর্থ সংগঠনের ফান্ডে জমা না করে সকলের অগুচরে নিজেই আত্মসাত করে নেয়। পরে বিষয়টি জানানি হলে সভাপতি জালাল উদ্দীন বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে একই ফাঁদে পা রাখেন। ফলে তারও শেষ রক্ষা হয়নি।

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ম-আহবায়ক ও উপদেষ্টা ওসমান গনি মুজাহিদ বারবার সাধারণ সম্পাদক আজিম উদ্দিনকে স্বশরীরে মিটিংএ উপস্থিত হয়ে বিষয়টি মিমাংসা করার তাগাদা দিলেও নানা অজুহাতে সে বিষয়টি এড়িয়ে যায়।

সর্বশেষ বিশেষ ক্ষমতা বলে গত ২৬ জুন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক নির্বাচন কমিশনার ওসমান গনি মোজাহিদের সভাপতিত্বে উপজেলার নাহার কমিউনিটি সেন্টার মিলনায়তনে এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আজিম উদ্দিন স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে কালেকশনকৃত অর্থের হিসাব প্রদান করতে ব্যর্থ হওয়ায় উপস্থিত সকলের সর্বসম্মতিক্রমে আজিমকে আর্থিক অনিয়ম, দুর্নীতি, সংগঠন বিরোধী কার্য-কলাপে লিপ্ত থাকার সুস্পষ্ট অভিযোগে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। সভার আলোকে গত ২৮ জুন সাবেক তিন নির্বাচন কমিশনারের যৌথ স্বাক্ষরের এক বিবৃতিতে বহিষ্কারাদেশ কার্যকর করেন।

উল্লেখ্য, বাঁশখালী কমল স্মৃতি সংসদ ২০১৬ সালের ১৬ জুন ওসমান গনি মুজাহিদকে আহ্বায়ক ও বেলাল মাহমুদকে সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক নির্বাচন করে সমাজের গঠনমূলক চিন্তা চেতনা নিয়ে সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা হয়। সেই প্রতিষ্ঠাকাল হতে দেশের ক্লান্তিলগ্নে সমসাময়িক নানান কার্যক্রম সফলতার সহিত বাস্তবায়ন করে আসছে সংগঠনটি। তাতে বেশ সুনামও অর্জন করেছে । গেলো বছরের ৬ সেপ্টেম্বর ঝাঁকঝমকপূর্ন অনাড়ম্বর পরিবেশে প্রথম বারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচন পরিচালনা করেন তৎকালীন সময়ের নির্বাচন কমিশনার ওসমান গণি মুজাহিদ, শওকতুল ইসলাম ও নুরুল মোস্তফা সিকদার। সেই নির্বাচনে উপজেলার ১টি পৌরসভা ও ১৪টি ইউনিয়নের ৪২ জন কাউন্সিলর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে ভোট প্রয়োগের সুযোগ পায়। নির্বাচনে জালাল উদ্দিন সভাপতি ও আজিম উদ্দিন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়।

নির্বাচিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ আরো পাঁচ ও সদস্য নিয়োগের মাধ্যমে সাত সদস্যের কেবিনেট গঠন করে সংগঠনটির কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।

তথ্যসূত্রে জানা যায়, গত ২৪ জুন সাধারণ সম্পাদক আজিমের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিকভাবে আর্থিক অনিয়ম, দুর্নীতি, সংগঠন বিরোধী কার্য-কলাপে লিপ্ত থাকার অভিযোগ এনে সেই কেবিনেটের ৭ সদস্যের মধ্যে সভাপতি ব্যতীত ৫ সদস্যই পদত্যাগ করেন। এতে করে উন্মোচন হয় আজিমের দুর্নীতির সাতকাহন।

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক ওসমান গনি মুজাহিদ বলেন, বাঁশখালী কমল স্মৃতি সংসদ প্রতিষ্ঠা করতে গিয়ে আমরা অনেক ত্যাগ শিকার করেছি। আর সেই ত্যাগের বিনিময়ে প্রতিষ্ঠিত সংগঠনের পদ-পদবী এবং ব্যানার ব্যাবহার করে নিরবে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হবে তা কোন অবস্থাতে সহ্য করা হবে না। আমরা আজিমের বিরুদ্ধে সুস্পষ্ট অভিযোগ পেয়েছি। এবং তা প্রমানিত হয়েছে। তাই তাকে বিশেষ ক্ষমতা বলে বহিষ্কার করা হয়েছে। পরবর্তীতে সভাপতি জালাল উদ্দীনের সম্পৃক্ততা থাকার বিষয় প্রমাণিত হওয়ায় তাকেও সকল পদ হতে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে কমল স্মৃতি সংসদের প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ম আহ্বায়ক ও সাবেক নির্বাচন কমিশনার নুরুল মোস্তফা সিকদার বলেন, পূর্ব নির্ধারিত সভায় সকল সদস্যদের সর্ব সম্মতিক্রমে আর্থিক অনিয়ম, দুর্নীতি, সংগঠন বিরোধী কার্য-কলাপে লিপ্ত থাকার অভিযোগে সংগঠনের সাংগঠনিক পদ সাধারণ সম্পাদক ও সাধারণ সদস্য পদ হতে বহিষ্কার করা হয়েছে। সাত সদস্য বিশিষ্ট কার্য-নির্বাহী কমিটির পাঁচ সদস্য আজিম উদ্দীনের আর্থিক কেলেঙ্কারী ও সভাপতির নিরবতায় যোগসূত্রের অভিযোগে ক্ষিপ্ত হয়ে সিনিয়র সহ-সভাপতি বেলাল মাহমুদ, সহ-সভাপতি সৈয়দ নুরুল আফসার, সাংগঠনিক সম্পাদক হেফাজ উদ্দীন চৌধুরী, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আনিসুজ্জামান, যুগ্ম সম্পাদক নুর উদ্দীন পূর্বেই পদত্যাগ করেন। কার্য-নির্বাহী কমিটির সাত জনের মধ্যে পাঁচজন পদত্যাগ করায় সংগঠনের অচল অবস্থা সৃষ্টি হয়। সর্বশেষ সভাপতি জালাল উদ্দীনেকেও “সভাপতি ও সদস্য পদ” বাতিল সহ বহিষ্কার করতে বাধ্য হয়। এ অচল অবস্থায় সংকট নিরসনে আমরা বিশেষ ক্ষমতা বলে কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম