1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
সাংবাদিক’ নামে অপকর্ম, বিব্রত পেশাদার সাংবাদিকরা! - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০১:৪৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
শিক্ষক হেনস্তায় নিন্দা, প্রতিবাদ ও শাস্তির দাবি কুবি শিক্ষক সমিতির তিতাসে সাংবাদিক শামসুদ্দিন আহমেদ সাগরের জন্মদিন পালন মীরসরাইয়ে অপরিকল্পিত রাস্তা নির্মাণের কারণে পানি বন্দি কয়েক হাজার মানুষ মীরসরাইয়ে প্রথমদিনে ৫ ইউনিয়নে টিসিবির পণ্য বিতরণ সাতকানিয়া পৌরসভায় ৫৮ কোটি ৪৩ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা বাবা-মায়ের কবরের পাশে চিরনিদ্রায় শা‌য়িত ডাঃ মুমিনুল হক চৌধুরী নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কাভার্ড ভ্যানের চাপায় নিহত ৫, আহত ৪ সৈয়দপুর পৌরসভার ১৭১ কোটি ২৮ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা করলেন মেয়র রাফিকা আকতার জাহান চন্দনাইশে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে আটক-৪ মান্দায় যুবলীগ নেতার ওপর হামলা, গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ

সাংবাদিক’ নামে অপকর্ম, বিব্রত পেশাদার সাংবাদিকরা!

মুজিব উল্ল্যাহ্ তুষার , সাংবাদিক, সংগঠক ও মানবাধিকার কর্মী।
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৬ মে, ২০২২
  • ৫১ বার

অনলাইন সংবাদপত্র ও অনলাইন টেলিভিশন খুলে বিভিন্নজনকে নিয়োগ দিয়ে, বিভিন্ন ব্যক্তিকে ‘নিউজ করে দেব’—এমন ভয়-ভীতি দেখিয়ে টাকা নিয়ে আসে। এভাবে ‘সাংবাদিক’ পরিচয় দিয়ে অপরাধ সংঘটনের প্রবণতা সম্প্রতি চট্টগ্রামসহ সারা দেশেই বেড়ে গেছে। এতে সাংবাদিকতার মতো একটি পেশার মর্যাদা হুমকির মুখে পড়েছে। বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হচ্ছেন প্রকৃত ও পেশাদার সাংবাদিকরা।

যশোরে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে এক যুবক ধরা পড়ার পর জানা গেল সেও সাংবাদিক, ছাত্রীকে টেলিভিশনের লাইভ অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার কথা বলে এনে ওই অপকর্ম করেছে।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা থেকে শিশু অপহরণের দায়ে লুপা তালুকদার নামের এক নারী ধরা পড়ার পর জানা গেল তিনিও সাংবাদিক; একটি টেলিভিশনের ক্রাইম রিপোর্টার, নিজেও একটি অনলাইন টিভির মালিক।

সমাজে ‘সাংবাদিক’-এর গ্রহণযোগ্যতা বা বিভিন্ন স্থানে সহজ প্রবেশাধিকারের কারণে এর অপব্যবহারের প্রবণতা দীর্ঘদিন থেকেই চলে আসছে। রাজনৈতিক প্রভাব বৃদ্ধি, অনৈতিক সুযোগ-সুবিধা আদায়, অপরাধ ঢাকা দেওয়া ও অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনার জন্য ‘সাংবাদিক’ পরিচয় ব্যবহার করে অনেক অসৎ লোক, অনেক অপরাধী। অনেকে প্রশাসনে ও প্রভাবশালী ব্যক্তিদের নৈকট্য লাভের জন্যও সংবাদমাধ্যমকে ব্যবহার করে। তথ্য-প্রযুক্তির সহজলভ্যতার সুযোগে যেকোনো একজন ঘরে বসেই একটি সংবাদমাধ্যম খুলে বসার সুযোগ পাচ্ছে। কোনো খরচ ছাড়াই সামান্য প্রযুক্তিজ্ঞান নিয়ে ফেসবুক টিভি কিংবা ইউটিউব চ্যানেল চালু করা যাচ্ছে। অল্প খরচেই একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল চালু করে ফেলতে পারছে। অপরাধী ও ধান্দাবাজরা এই সুযোগ গ্রহণ করছে। দাগি অপরাধীরাও ‘সাংবাদিক’ নাম ভাঙিয়ে প্রতারণা করছে। নানা অপকর্ম করে পার পেয়ে যাচ্ছে।

ঢাকা থেকে প্রকাশিত কিছু ভুঁইফোড় সংবাদপত্র সারা দেশে প্রতিনিধি নিয়োগ করার নামে কার্ড বিক্রি করে এই অপতৎপরতার সুযোগ তৈরি করে দিচ্ছিল আগে থেকেই। কিছু বেসরকারি টেলিভিশনও অর্থের বিনিময়ে সারা দেশে প্রতিনিধি নিয়োগ দিচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। আর এখন তো চাইলেই যে কেউ অললাইন মিডিয়ার ‘মালিক’, ‘সম্পাদক’, ‘সাংবাদিক’, ‘রিপোর্টার’ হতে পারছে। একটি অনলাইন পোর্টালের রিপোর্টে বলা হয়েছে, ‘এক হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকায় সাংবাদিক কার্ড কিনে চট্টগ্রাম মহানগর ও জেলা চষে বেড়াচ্ছে শতাধিক ভুয়া সাংবাদিক। অসাধুচক্রের কাছ থেকে অখ্যাত পত্রিকা, অনলাইন পত্রিকা ও অনলাইন টিভির কার্ড নিয়ে যথেচ্ছাচার করে বেড়াচ্ছে এসব ব্যক্তি। তারা সাংবাদিক সেজে মোটরসাইকেলে ‘প্রেস’ ও ‘সাংবাদিক’ লিখে বোকা বানাচ্ছে বিভিন্ন মহলকে। অনেকে রীতিমতো মাদক বহনের কাজও করছে।’

বিভিন্নজনের ব্যক্তিগত বিষয় প্রকাশ করে দেওয়া হবে বলে হুমকি দিয়ে অনৈতিক তৎপরতা চালাচ্ছে। এদের বিরুদ্ধে তথ্য বিকৃতি, গুজব ছড়ানোরও অভিযোগ রয়েছে। বেশির ভাগ নিউজ পোর্টালের বিরুদ্ধে সাংবাদিকতার রীতিনীতি না মেনে সংবাদ প্রকাশের অভিযোগ রয়েছে। এ ধরনের অনলাইন পোর্টাল দীর্ঘদিন ধরে অপসাংবাদিকতার কাজেই ব্যবহৃত হচ্ছে।
সাংবাদিকতার নাম ব্যবহার করে যারা প্রতারণা করছে তাদের চিহ্নিত করে কঠোর শাস্তির আওতায় আনার দরকার মনে কয়েছেন গণমাধ্যম বিশেষজ্ঞরা। এ জন্য গণমাধ্যম ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণেরও তাগিদ দিয়েছেন তাঁরা।
অনলাইন পোর্টালগুলোর অনুমোদন দেওয়ার ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন, এগুলোর অপব্যবহার হচ্ছে কি না তা পর্যবেক্ষণ করা উচিত বলে অনেকেই মনে করেন। অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিবন্ধনের জন্য সরকারের উদ্যোগকে অনেকেই স্বাগত জানিয়েছেন।

রমজান মাসে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ইফতারে দাওয়াত পাক বা না পাক যাথা সময়ে একদল সাংবাদিক ইফতার মাহফিলে উপস্থিত শুধু তাই নয় আসার সময়ে তাদেরকে বখশিশ দিতে হয় না হয় বিপরীত সংবাদ প্রকাশ পায়। ঈদ উপহারের জন্য বড় বড় প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নামে দাওয়াত নামা পাঠানো হয়। বিশেষ করে এই রমজান মাসে চট্টগ্রামে বিভিন্ন নামে বেনামে সাংবাদিক সংগঠনের জম্ম হয়েছে।

‘প্রেসক্লাব’, ‘মানবাধিকার সাংবাদিক’, ‘পরিবেশ সাংবাদিক’ ক্রাইম রিপোর্টার্স ইউনিটি,সাংবাদিক পরিষদ, বাংলাদেশ প্রেস ক্লাব,সাংবাদিক ক্লাব,সাংবাদিক ফোরাম,প্রভৃতি নামে প্রতারণা চলছে সারা দেশে। মানবাধিকার সংগঠনের নামে প্রতারণার অভিযোগে এর আগে ভুয়া সাংবাদিক ও তথাকথিত মানবাধিকার সংগঠন ‘ইন্টারন্যাশনাল হিউম্যান রাইটস ক্রাইম রিপোর্টার্স ফাউন্ডেশন সংগঠনটি ঢাকাসহ সারা দেশে টাকার বিনিময়ে প্রায় ১৫ হাজার ব্যক্তিকে ‘প্রেস’ লেখা আইডি কার্ড বিতরণ করেছে। এ দেশে প্রতারণা করে সহজে পার পাওয়া যায়, এ কারণে সাংবাদিকতার নামেও প্রতারণা বেড়ে যাচ্ছে।‘সাংবাদিক’ নামধারী অপরাধীদের চিহ্নিত করে কঠোর শাস্তির মাধ্যমে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পারলেই এই প্রতারণা রোধ করা সম্ভব। এ জন্য গণমাধ্যম ও নিরাপত্তা বাহিনীর সমন্বিত উদ্যোগ জরুরি। শুধু তাই নয় রাজনৈতিক ও ব্যাবসায়িক ফায়দা লোটার প্রবণতা থেকেই সাংবাদিকতার নাম ব্যবহারের প্রবণতা বেড়ে গেছে। গণমাধ্যমের প্রাতিষ্ঠানিক দুর্বলতার সুযোগ নিচ্ছে তারা। প্রাতিষ্ঠানিক দুর্বলতার কারণেই প্রতারক, খুনের মামলারও আসামি, মাদক কারবারী সেও কোনো প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ পেয়ে যাচ্ছে, এমন কি নাম করা সাংবাদিক সংগঠন গুলোর সদস্য হয়ে যাচ্ছে।নিয়োগ দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানগুলোকে আরো ভাবতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম