1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
তিতাসে মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বেগম রোকেয়া গার্লস স্কুল এন্ড কলেজে পিঠা উৎসব - দৈনিক শ্যামল বাংলা
মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:৪৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
যাত্রীবাহি বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেল চুয়েটের দুই শিক্ষার্থীর নবীগঞ্জে সাংবাদিকদের সঙ্গে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী সাংবাদিক সাইফুল জাহান চৌধুরীর মতবিনিময় নবীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বোরহান চৌধুরীর নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের মত বিনিময় সভা ঠাকুরগাঁওয়ে ঐতিহ্যবাহী বৈশাখী মেলাকে আবদ্ধ করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন চট্টগ্রামের চন্দনাইশে পুকুরে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু তীব্র তাপদাহে রাউজানে পথচারীদের মাঝে সুপেয় পানি বিতরণ মাগুরায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৬ পরিবারের প্রায় ১৫ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি! ছবি তোলার অপরাধে সাংবাদিক গ্রেফতার, অত:পর মুক্তি নবীনগরে প্রারম্ভিক শিশু বিকাশ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত মহাকবি আল্লামা ইকবালের ৮৬তম মৃত্যুবার্ষিকী পালন

তিতাসে মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বেগম রোকেয়া গার্লস স্কুল এন্ড কলেজে পিঠা উৎসব

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
  • ৩০ বার

মোঃ জুয়েল রানা

তিতাস প্রতিনিধি:

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে কুমিল্লা তিতাস উপজেলার বেগম রোকেয়া স্কুল এন্ড কলেজে দিনব্যাপী আয়োজন করা হয়েছে পিঠা উৎসব। বুধবার (২১শে ফেব্রুয়ারী) বিদ্যালয়ের আঙ্গিনায় গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যকে স্মরণ করতেই শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা মিলে এ উৎসবের আয়োজন করা হয়।

এতে কেক কেটে পিঠা উৎসব উদ্বোধন করেন উপজেলার নারান্দিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুজ্জামান খোকা এবং প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কুমিল্লা জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন পলাশ। এছাড়াও পরিচালক গোলাম কিবরিয়ার সঞ্চালনায় ও অত্র প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মো: রুমেন মিয়ার সভাপতিত্বে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক কামাল পারভেজ, নাসির উদ্দীন মাসুম ও শাহজাহান মুন্সিসহ শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ।

পিঠা উৎসব ঘুরে দেখা যায়, বিদ্যালয়ের আঙিনায় ৮টি স্টল সাজানো হয়েছে নানা রকমের পিঠা দিয়ে। এতে অংশগ্রহণ করেন ঐ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা। পরে অতিথি ও শিক্ষকদের বিচার বিশ্লেষণে প্রথম স্থান অর্জন করেন রাজশাহী পিঠা ঘর অষ্টম শ্রেণি, দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেন খুলনা পিঠা ঘর একাদশ শ্রেণি ও তৃতীয় স্থান অর্জন করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম সপ্তম শ্রেণি।

শিক্ষার্থী বলেন, ‘বাহারি রকমের এতো পিঠা একসঙ্গে কখনো দেখা হয়নি। আজ পিঠা উৎসবে শিক্ষক ও সহপাঠীদের সঙ্গে পিঠা খাচ্ছি এবং বিক্রি করছি। এতে আমাদের খুব আনন্দ হচ্ছে।’

এদিকে প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ মো: রুমেন মিয়া বলেন, ‘পিঠা-পুলি আমাদের লোকজ ও নান্দনিক সংস্কৃতিরই প্রকাশ। শহর কেন্দ্রীয় জীবন জীবিকার কারণে এই দেশজ উৎসব কমে গেছে। পিঠা উৎসবের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা বাঙালির নানা রকমের পিঠার সঙ্গে পরিচিত হতে পারে।’

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম