1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
বাস্তব জীবনেও সামাজিক মাধ্যমের প্রভাব - দৈনিক শ্যামল বাংলা
মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ০২:৫৬ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নবীনগরে কোটাপদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল রাউজানে তিনদিন ব্যাপী বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন রাউজানে ৬০ প্রজাতির ১ লাখ ৮০ হাজার ফলজ ও ঔষধি গাছের চারা রোপন কর্মসূচি উদ্বোধন মাগুরায় নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান শরিয়াতউল্লাহ হোসেন রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান  *জরুরী রক্ত প্রয়োজন*রক্তের গ্রুপ: AB+ (এবি পজেটিভ) ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চৌদ্দগ্রামে তিন ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর আ’লীগ-ছাত্রলীগের হামলা সারাদেশে ছাত্রসমাজের উপর মর্মান্তিক হামলার প্রতিবাদ ও কোটা সংস্কারের এক দফা দাবিতে দোহাজারীতে বিক্ষোভ মিছিল  এমএসআর’র ১ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা লুটপাট সমস্যায় জর্জরিত চট্টগ্রামের চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-অধিকাংশ চিকিৎসক অনুপস্থিত থাকেন নবীনগরে কুতুবিয়া দরবার শরীফে শাহাদাতে কারবালা মাহফিল অনুষ্ঠিত

বাস্তব জীবনেও সামাজিক মাধ্যমের প্রভাব

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪
  • ৯৩ বার

মুহাম্মদ আমির হোছাইন

নদীর ঘাটে নেই সারি-সারি নৌকা, পাল নৌকার ভাটিয়ালি গান শুনা যায় না । তীব্র সূর্যলোকে উদাস হয়ে বাঁশি বাঁজে না । ঘাসফড়িং এর ধরে যায় না, বৃষ্টি শেষে রংধনু দেখার উল্লাস আর নেই, শিশুরা- কিশোরের সে দুরান্তপনা আর নেই । খেলা মাঠ থেকে কর্ম জীবনে প্রযুক্তির ছোঁয়া লেগেছে বহু বর্ষ আগে।

প্রযুক্তি উৎকর্ষ সাধনে বিশ্বায়ন এবং ডিজিটালাইজেশনে হল মানুষ। মানুষের সাথে যোগাযোগে এল বিবর্তনের নতুন ধারা । সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের রূপে চিঠির পরির্বতে যুক্ত হল ফেসবুক, টুইটার,ইমু, হোয়াটসঅ্যাপ, ইনস্টাগ্রাম, স্ন্যাপচ্যাট, লিংকডইন ইত্যাদির।

মানুষের সাথে সংযোগ স্থাপন এবং তথ্য আদান প্রদান করার একটি সহজ উপায় হিসেবে সামাজিক মাধ্যমকে ব্যবহার করছে হারহামেশা । এ মাধ্যমগুলো আধুনিক সমাজের একটি অপরিহার্য অংশ হয়ে উঠেছে। আমরা প্রায় সবাই কোনো না কোনোভাবে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সঙ্গে যুক্ত এবং নির্ভরশীল।

সামাজিক মাধ্যমকে ব্যবহার করে ডিজিটাল পর্দায় প্রতিদিন গড়ে উঠছে নতুন নতুন বন্ধুত্ব,সম্পর্ক। মানুষ অন্য মানুষের সঙ্গে যুক্ত হতে পারছে , ভিন্ন সংস্কৃতির আগের যে কোন সময়ে চেয়ে খুব দ্রুত পরিচিত হতে পারছে । সহস্র মাইলের দূরত্বকে ফোন বা কম্পিউটারের পর্দার মাধ্যমে  ডিজিটাল পর্দায়

(ছবি লেখক– মুহাম্মদ আমির হোছাইন)

যুক্ত করে কম সময়ে ঘরে বসে পারস্পারিক আলাপ, ব্যবসায়িক আলাপ সেরে নিচ্ছে।

 

প্রতিনিয়ত সৃজনশীল কাজের সাথে পরিচিত হচ্ছে। তথ্য-প্রযুক্তির অবাধে সুবিধায় মার্শাল ম্যাকলুহানের বিশ্বগ্রাম ধারণা বাস্তব রুপ লাভ করেছে ।সারা দুনিয়ার মানুষ সবাই একটি ইন্টারনেট পরিবার যুক্ত। চাইলেই ভার্চ্যুয়াল বিশ্বে দূর-দুরান্তে থাকা বন্ধু-পরিবারের সাথে মনের সুখ-দুঃখ মুহূর্তে ভাগ করে নেওয়া যায়।

বেড়েছে তথ্যের অবাধ প্রবাহ আর তথ্যের নতুন মোড়কে উত্থান ঘটছে নাগরিক সাংবাদিকতা বা সিটিজেন জার্নালিজমের। যে কোন অবস্থান সরাসরি তথ্য প্রদান করে করেছে। ফলে অনেক সময় সত্যতা যাচাই সম্ভব হয় না । জীবন ধারণে নতুন আইডিয়া, নিত্য নতুন বৈচিত্র্যতা। ঋতু বেধে বৈচিত্র্য পোশাক উন্মাদনা ।

এ যোগাযোগ মাধ্যমসমূহের ব্যবহার মানুষকে চার দেওয়ালে বন্ধি করে ফেলেছে। বিল ধার রঙ্গিন চিল আসলেও, আকাশে আর রঙ্গিন ঘুড়ি উঠে না। কাল বৈশাখে ঝড়ে আম কুড়ানো সুখে হৈ হুল্লোর আর দেখা মেলে না ।

এ যোগাযোগ প্রচুর ব্যবহারে সামাজিক ও স্বাস্থ্য খাতে সৃষ্টি করছে ভয়াবহ পরিস্থিতি। বিধিনিষেধ ছাড়াই সেখানে কোনো ধরনের যেকোনো কনটেন্ট বা অবাধে দেখতে পাচ্ছে। ভার্চ্যুয়াল যোগাযোগের ফলে মানুষের সামাজিক বিশ্বাস ও মূল্যবোধ, জীবন-দর্শন ও জীবনধারয় এসেছে পরিবর্তন । বাড়ছে একে অপরের সন্দেহপ্রবণতা। মানুষ পরিবারিক সর্ম্পককে যথাযথ মূল্যায়ানে অনিহা, নতুন করে হতাশার সঙ্গে যুক্ত অসংখ্য মানুষ। এক্ষেত্রে বিশেষ করে শিশু-কিশোরদের মধ্যই তা বেশি ।

যুক্তরাজ্যের দ্য ল্যানসেট চাইল্ড অ্যান্ড অ্যাডলসেন্ট হেলথ জার্নালে প্রকাশিত গবেষণার মতে ,সমস্যাটি আরো জটিল হতে পারে। লাইকি, টিকটক, উইচ্যাটসহ বিভিন্ন সোশ্যাল মাধ্যমের যথেচ্ছ ব্যবহার করছে। মোবাইল, ল্যাপটপ, ট্যাবের মতো ডিভাইসে তারা সময় কাটাচ্ছে। ঘুম ও শারীরিক অনুশীলন হ্রাস করে। এর ফলে তাদের মধ্যে হীনম্মন্যতা, দুশ্চিন্তা, অশান্তি ও হতাশা তথা মানসিক সমস্যা সৃষ্টি করছে।

এ কিশোর- কিশোরীদের মাঝে খ্যাতি প্রতিযোগিতা তৈরি হয়েছে,সেইসঙ্গে নিজেকে রাতারাতি সুপরিচিত করতেও যে কোনো একটি মাধ্যম বেছে নেয়। এজন্য সোশ্যাল মাধ্যমে বিকৃত অঙ্গভঙ্গি, অশ্লীল শব্দ প্রয়োগ এমনকি বিভিন্ন ভাষার সংমিশ্রণে ভাষাকে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করছে । ফলে Cyberbullying , misinformation, Cyberstalking and harassment এর শিকার হতে হচ্ছে । তা ব্যক্তির উপর গুরুতর মানসিক চাপ, কম আত্মসম্মানবোধ এবং কিছু ক্ষেত্রে এমনকি আত্মহত্যার অভিজ্ঞতাও পান। ব্যক্তির তুলনায় অনলাইনে বেশি সময় ব্যয় করার প্রবণতা ,যা একাকীত্ব এবং সামাজিক বিচ্ছিন্নতার অনুভূতির দিকে পরিচালিত করেছে। সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করে অপরাধীরা নানান ফাঁদ আটে রয়েছে , যৌন প্রতারণা, অর্থচুরি মত নিত্য ঘটছে ।

এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল ইয়ুথ রিস্ক সার্ভের ২০২১ সালের প্রতিবেদনে জানা যায় , দিনে তিন ঘণ্টার বেশি সময় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কাটানো কিশোর বয়সীদের মধ্যে বিষণ্নতা ও দুশ্চিন্তায় ভোগার ঝুঁকি দ্বিগুণ। এ ছাড়া ১৩-১৭ বছর বয়সীদের ৪৬ শতাংশ তাদের শরীরের গঠন নিয়ে বাজে ধারণা পেয়েছে এবং ৬৪ শতাংশ মাঝেমধ্যে অথবা প্রায়ই ঘৃণাভিত্তিক আধেয়ের মুখোমুখি হয়েছে।

এ ছাড়া ২০২০ সালের এক রিপোর্টে জানা যায় সারা বিশ্বের সোশ্যাল মিডিয়া থেকে এক লক্ষেরও বেশি নারীর ছবি সংগ্রহ করে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) ব্যবহার করে এসব ছবি থেকে নারী দেহের পোশাক সরিয়ে ফেলা হচ্ছে এবং মেসেজিং অ্যাপ টেলিগ্রামের মাধ্যমে এসব নগ্ন ছবি ছড়িয়ে দেয়া হচ্ছে বলে রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে। এসব বিবস্ত্র নারীর অনেকেই অল্পবয়সী। তারা বাস্তব জীবনে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন হচ্ছে । বিশেষজ্ঞরা অভিভাবকদের নানা উপায়ে বাচ্চাদের ইন্টারনেট ব্যবহারের ওপর নজর রাখতে ও তা সীমিত করতে পরামর্শ দিচ্ছেন।

—- লেখক,সাংবাদিক

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম