1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
চট্টগ্রাম বঙ্গবন্ধু টানেলের কাজ নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ - দৈনিক শ্যামল বাংলা
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৬:১৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
পিরোজপুরের নেছারাবাদে বিধবা নারীকে জুতা পিটার অভিযোগ ক্ষতি ১৫ কোটি টাকা, লালমনিরহাটে তিস্তার পানি কমেছে কুবিতে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় ‘খ’ ইউনিটে উপস্থিতি ৯৫.৪৪ শতাংশ জনপ্রিয় অভিনেতা ওয়ালিউল হক রুমির জন্মদিন আজ রংপুরে ধর্মপ্রাণ ও পরোপকারী নারী মরহুমা অজুবা বেগমের স্মরণে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল নেককার সন্তান আল্লাহর কাছে চেয়ে নিতে হয় সোনারগাঁয়ের ৮ ইউনিয়নে নৌকার মাঝি হলেন যারা কোরআন জিম্মি করে দেশে সাম্প্রদায়িক অস্থিরতা সৃষ্টির অপপ্রয়াসে উদ্বেগ লালমনিরহাটে খুচরা মাছ ব্যবসায়ীর ছেলে নব্যকোটিপতি বিজিবি’র গরুর লাইনম্যানীর অন্তরালে হুন্ডী ও মাদক পাচার পায়রা সেতুর উদ্বোধন

চট্টগ্রাম বঙ্গবন্ধু টানেলের কাজ নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি :
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২১
  • ১৩ বার

কর্ণফুলী নদীর তলদেশে নির্মাণাধীন টানেল নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ হয়েছে কর্ণফুলী নদীর নিচে স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু টানেলের দ্বিতীয় চ্যানেলের খননকাজ। চট্টগ্রামের আনোয়ারা প্রান্ত থেকে পতেঙ্গা প্রান্ত পর্যন্ত দীর্ঘ এই চ্যানেলের খননকাজ শেষ হয়। পূর্ব ঘোষণা অনু্যায়ী, চ্যানেলটির মুখ খুলে দেওয়ার রয়েছে আজ শুক্রবার।

বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) দুপুরে দ্বিতীয় টিউবের খননকাজ শেষ হয়। টানেল বোরিং মেশিন (টিবিএম) ব্যবহার করে এটি খনন করতে সময় লেগেছে ১০ মাস। এর আগে প্রথম টিউবের খননকাজ করতে সময় লেগেছিল ১৭ মাস।

প্রকল্প পরিচালক হারুনুর রশিদ চৌধুরী বলেন, দ্বিতীয় টিউবের খননকাজ শেষ হলেও স্ল্যাবের কাজ বাকি রয়েছে। আশা করছি, জানুয়ারি মাসে কাজ শুরু করা যাবে। ২০২২ সালের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত এই প্রকল্পের মেয়াদ। এই সময়ের মধ্যেই কাজ শেষ করার চেষ্টা রয়েছে।

জানা যায়, মূল টানেলের দৈর্ঘ্য ৩ দশমিক ৩২ কিলোমিটার। এর মধ্যে টানেলের প্রতিটি সুড়ঙ্গের দৈর্ঘ্য ২ দশমিক ৪৫ কিলোমিটার। দুই সুড়ঙ্গে দুটি করে মোট চারটি লেন থাকবে। মূল টানেলের সঙ্গে পশ্চিম ও পূর্ব প্রান্তে ৫ দশমিক ৩৫ কিলোমিটার সংযোগ সড়ক থাকবে।

২০২০ সালের ১২ ডিসেম্বর আনোয়ারা প্রান্ত থেকে টিউবের খননকাজ শুরু হয়। ২০১৯ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্ণফুলী নদীর তলদেশে দেশের প্রথম টানেলের নির্মাণকাজ উদ্বোধন করেন। ১৮ থেকে ৩১ মিটার গভীরে প্রতিটি টানেলের প্রশস্ততা ৩৫ ফুট। এতে ব্যয় হচ্ছে ১০ হাজার ৩৭৪ কোটি টাকা।

২০১৪ সালে প্রকল্প বাস্তবায়নে বাংলাদেশ ও চীনের সরকারি পর্যায়ে টানেল নির্মাণে সমঝোতা হয়। চুক্তি স্বাক্ষর হয় ২০১৫ সালের ২৪ নভেম্বর। টানেল নির্মাণে আছে চায়না কমিউনিকেশন অ্যান্ড কনস্ট্রাকশন কোম্পানি (সিসিসিসি) লিমিটেড।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম